সাতক্ষীরার পিএন স্কুল পরীক্ষা কেন্দ্রে হল সুপারের বিরুদ্ধে গনিত পরীক্ষায় ভুল নির্দেশনা দেওয়ার অভিযোগ


461 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরার পিএন স্কুল পরীক্ষা কেন্দ্রে হল সুপারের বিরুদ্ধে গনিত পরীক্ষায় ভুল নির্দেশনা দেওয়ার অভিযোগ
নভেম্বর ২৬, ২০১৮ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

আব্দুস সামাদ ::

গনিত পরীক্ষায় সাতক্ষীরা পিএন স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রে পিইসি পরীক্ষার্থীদের ভুল নিদের্শনা দেওয়া অভিযোগ পাওয়া গেছে হল সুপার আবু সেলিম ও সহকারী হল সুপার শিউলি পারভীনের বিরুদ্ধে। নিয়োম অনুসারে গনিতের রাফ অংকের পাশে করার নির্দেশনা থাকলেও তারা রুমে রুমে গিয়ে গনিতের রাফ পাশে না করে পেছনে করার নির্দেশনা দেন। নির্দেশনা অনুসারে শিক্ষার্থীরা রাফ পাশে না করে খাতার পেছনে করেছে বলে জানা গেছে।
জানাযায়, সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কালেক্টরেট স্কুল, পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, সিলভার জুবলী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ১নং ওয়ার্ডে সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সাতক্ষীরা পিএন স্কুল কেন্দ্রে পরীক্ষা দিচ্ছে। এ কেন্দ্র আটশ ৩৬ জন পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা দিচ্ছে। রবিবার গনিত পরীক্ষার সময় হল সুপার হাডদ্দাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু সেলিম ও সহকারী হল সুপার শিউলি পারভীন রুমে রুমে গনিতের রাফ পাশে অংকের পাশে না করে পেছনে করার নির্দেশনা দেয়। পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষা শেষে বিষয়টি অভিভাবকদের জানালে তারা এ বিষয়ে কেন্দ্রে অভিযোগ করে।
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে হল সুপার হাড়দ্দাহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু সেলিম বলেন, আমি এমনটি করিনি। এটি করেছে শিউলি ম্যাডাম। তিনি কয়েকটি রুমে রাফ খাতার পেছনে করার নির্দেশনা দিয়েছেন। পরীক্ষা শেষে অভিভাবকরা অভিযোগ করলে উপরে কথা বলা হয়েছে। যারা খাতার পেছনে রাফ করেছে তাদের খাতার মূল্যায়নের ক্ষেত্রে কোন ত্রুটি হবে না বলে তিনি স্বীকার করেন।
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সহকারি হল সুপার শিউলি পারভীন বলেন, এটি ভুল তথ্য নয়। পরীক্ষার্থীরা পাশে রাফ করে কাটা কাটি করছিল তাই তাদের পেছনে করার কথা বলা হয়েছে। এতে তেমন কোন ক্ষতি হবেনা। তাছাড়া খাতা দেখবে উপজেলা থেকে তারা বিষয়টি দেখবে বলে তিনি জানিয়েছেন।
এ বিষয়ে সাতক্ষীরা সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মনতোষ কুমার দেবনাথ বলেন, এমন কোন বিষয়ে আমি শুনি নি। তবে এ ধরনে কোন ঘটনা ঘটলে শিক্ষার্থী তাদের যা পাওনা তা পারে। এতে কোন সমস্যা হবে না।
###