সাতক্ষীরার বেতনা নদী তীরবর্তী মানুষের প্রাণ প্রবাহের দাবিতে গনমাধ্যম সংলাপ


324 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরার বেতনা নদী তীরবর্তী মানুষের প্রাণ প্রবাহের দাবিতে গনমাধ্যম সংলাপ
মার্চ ২৯, ২০১৬ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

আসাদুজ্জামান :
‘জলাবদ্ধতার সময় নারী ও শিশুরা সবচেয়ে বেশি বিপদাপন্ন হয়ে পড়ে। সেসময় জন্ম নেওয়া শিশু হয় প্রতিবন্ধী, অথবা পুষ্টির অভাবে হাড় জিরজিরে হয়ে যায়। মা ও শিশুসহ সব বয়সের মানুষ চর্মরোগে আক্রান্ত হয়। জলাবদ্ধতা শেষ না হওয়া পর্যন্ত এ অবস্থা চলতে থাকে।’

20160329_104438

সাতক্ষীরার প্রাণ বেতনা নদী ও নদী তীরবর্তী মানুষের প্রাণ প্রবাহের দাবিতে শহরের অদূরে মাছখোলা মাঝেরপাড়া গ্রামে এক গনমাধ্যম সংলাপে এসব কথা বলেন বেতানা পাড়ের ভুক্তভোগী মানুষেরা। আন্তজার্তিক পানি দিবস উপলক্ষে উক্ত গনমাধ্যম সংলাপের আয়োজন করেন গবেষণা প্রতিষ্ঠান বারসিক এবং শিক্ষা, সংস্কৃতি ও বৈচিত্র্য রক্ষা টিম।
সংলাপে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে ও বাংলানিউজের জেলা প্রতিনিধি শেখ তানজির আহমেদের সঞ্চালনায় মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এম কামরুজ্জামান, সিনিয়র সাংবাদিক সুভাষ চৌধুরী, কল্যাণ ব্যানার্জি, মিজানুর রহমান, মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল, মো. আসাদুজ্জামান, হাফিজুর রহমান মাসুম, বেতনা পাড়ের বাসিন্দা রহিমা খাতুন, হাসিনা খাতুন, অঞ্জলি বিশ্বাস, নাজমা বেগম, আয়শা খাতুন, রাবেয়া, জেসমিনসহ শতাধিক মানুষ।

20160329_105021(1)
সংলাপে বেতনা পাড়ের মানুষেরা আরো জানান, নদী ভরাট হয়ে বেতনা পাড়ের পানি নিষ্কাশিত না হওয়ায় প্রতিবছর ছয় মাস ধরে এলাকায় জলাবদ্ধতা বিরাজ করে। এই কারণে বেতনা তীরে কোন ফসল হয়না। গাছ-গাছালি সবই মরে গেছে। হাঁস-মুরগি গবাদি পশু পালনেরও সুযোগ হারিয়ে গেছে। যে বেতনা তীরে কর্মসংস্থানের প্রাণ চাঞ্চল্য ছিল, সেই বেতনার দুইধারের মানুষ কাজ না পেয়ে অনেকেই এখন এলাকা ছেড়ে চলে গেছেন।##