সাতক্ষীরার ভোমরা স্থল বন্দরে রাজস্ব আদায় বেড়েছে


359 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরার ভোমরা স্থল বন্দরে রাজস্ব আদায় বেড়েছে
জানুয়ারি ১২, ২০১৬ জাতীয় ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

গোলাম সরোয়ার :
অন্য যে কোনো সময়ের তুলনায় চলতি অর্থবছরে রাজস্ব আদায় বেড়েছে সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরে।
এতে করে গেল ৬ মাসে রাজস্ব আদায় লক্ষ্যমাত্রা ছাপিয়ে ৩% প্রবৃদ্ধি করেছে বন্দরটি। আমদানি-রপ্তানি যে ভাবে এগোচ্ছে তা যদি অব্যাহত থাকে তাহলে আগামী ৬ মাসে বন্দরটির রাজস্ব অর্জনের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

ভোমরা বন্দরের রাজস্ব কর্মকর্তা মো. আব্দুল লতিফ জানান, চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কর্তৃক ভোমরা বন্দরে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্য নির্ধারন করা হয়েছে ২৬১ কোটি ২ লাখ ৭২ হাজার টাকা। এরমধ্যে জুলাইয়ে ৩২ কোটি ৭৫ লাখ ৮৭ হাজার ,  আগষ্টে ৪৫ কোটি ৮৯ লাখ ২০ হাজার টাকা ও সেপ্টেম্বরে ৪৮ কোটি টাকা ১৭ লাখ ৫২ হাজার,অক্টবরে ৪১ কোটি ৩১ লাখ ৫৯ হাজার,নভেম্বর মাসে ৪৭ কোটি ১৯ লাখ ৮৮ হাজার ও ডিসেম্বরে ৪৫ কোটি ৬৮ লাখ ৬৬ হাজার টাকা।

এর বিপরিতে গত ছয় মাসে অর্জিত হয়েছে ২৬৮ কোটি ৩৬ লাখ ৫৫ হাজার ৭৫৯৯ টাকা। এরমধ্যে জুলাইয়ে ২৬ কোটি ৭৮ লাখ ৪৩ হাজার ৮১১ টাকা, আগষ্টে ৩০ কোটি ৯ লাখ ১৩ হাজার ২৯০ টাকা, সেপ্টেম্বরে ৫৩ কোটি ২১ লাখ ৪৩ হাজার ৯১১ টাকা, অক্টবর মাসে ৫৯ কোটি ২৪ লাখ ৪৩ হাজার , নভেম্বর মাসে ৩৬ কোটি ৩২ লাখ ১০ হাজার ৩৯৯ টাকা ও ডিসেম্বরে ৫৬ কোটি ৬৮ লাখ ১১ হাজার ১১৯ টাকা। ফলে নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও ৭ কোটি ৩৩ লাখ ৮৩ হাজার টাকা অতিরিক্ত রাজস্ব অর্জন হয়েছে। এতে করে বন্দরটি গেল ৬ মাসে ৩% প্রবৃদ্ধি করেছে।

 

index&&&&&&&
ভোমরা স্থলবন্দরের দায়িত্বরত কাস্টমস্রে বিভাগীয় সহকারী কমিশনার (শুল্ক) শরীফ মো. আল-আমীন জানান, সম্প্রতি মন্দাভাব কাটিয়ে আবারও আমদানি বেড়ে যাওয়ায় রাজস্ব আদায়ও ভালো আসছে। যে কারনে গত ৬ মাসের রাজস্ব আদায় লক্ষ্যমাত্রা ছাপিয়ে ৩% প্রবৃদ্ধি করেছে বন্দরটি। আশা করা হচ্ছে চলতি অর্থবছরের বাকি ৬ মাসে রাজস্ব বোডের বেধে দেয়া লক্ষ্যমাত্রাও অর্জন করা সম্ভব হবে। এ জন্য ভোমরা শুল্ক স্টেশনে কর্মরত সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা আন্তরিক ভাবে কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য ঃ  চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরের জন্য ভোমরা বন্দরে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্য নির্ধারন করা হয়েছে ৬০০ কোটি টাকা। এরমধ্যে জুলাইতে ৩২ কোটি ৭৫ লাখ ৮৭ হাজার, আগষ্টে ৪৫ কোটি ৮৯ লাখ ২০ হাজার, সেপ্টেম্বরে ৪৮ কোটি ১৭ লাখ ৫২ হাজার, অক্টবরে ৪১ কোটি ৩১ লাখ ৫৯ হাজার, নভেম্বরে ৪৭ কোটি ১৯ লাখ ৮৮ হাজার, ডিসেম্বরে ৪৫ কোটি ৬৮ লাখ ৬৮ হাজার জানুয়ারীতে ৫৮ কোটি ৮৩ লাখ ৮৬ হাজার, ফেব্রুয়ারীতে ৬৫ কোটি ৭ লাখ ২১ হাজার, মার্চে ৭৩ কোটি ৪২ লাখ ৪৭ হাজার, এপ্রিলে ৫২ কোটি ২৯ লাখ ৩২ হাজার, মে মাসে ৪৮ কোটি ১২ লাখ ৫৩ হাজার ও জুনে ৪১ কোটি ২১ লাখ ৮৯ হাজার টাকা।
যা গেল অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় তিনগুনেরও বেশি। গত অর্থবছরে ভোমরা বন্দরের রাজস্ব আয়ের লক্ষ্য নির্ধারন করেছিলো (এনবিআর) ১৬৪ কোটি টাকা।