সাতক্ষীরার শ্যামনগর ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে লন্ডভন্ড : ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি


416 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরার শ্যামনগর ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে লন্ডভন্ড : ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি
নভেম্বর ১০, ২০১৯ দুুর্যোগ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

॥ বিজয় মন্ডল ॥

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে লন্ডভন্ড হয়েছে বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিণের সুন্দরবন উপকুলবর্তী উপজেলা শ্যামনগরের ১২ টি ইউনিয়ন এতে কয়েকশ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

রোববার দুপুরে শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কামরুজ্জামান ভয়েস অব সাতক্ষীরাকে এ কথা নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন,ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে উপকূলীয় শ্যামনগর এলাকা মারাত্মক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এতে এত কম সময়ের মধ্যে ক্ষতির সঠিক হিসাব বলা না গেলেও আনুমানিক তা শত কোটি ছাড়াতে পারে।

তিনি আরও জানান, সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল, স্থানীয় সাংসদ জগলুল হায়দার ও শ্যামনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এস এম আতাউল হক দোলনের সর্বাত্মক সহযোগিতায় এবং প্রশাসনের ব্যাপক তৎপরতায় অধিক ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার মানুষকে ঘর থেকে বের করে আশ্রয়কেন্দ্রে পৌছে দেওয়ার ব্যবস্থা করা সম্ভব হয়। যে কারণে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

তিনি জানান,উপজেলায় সম্পূর্ন ও আংশিক এবং ছোট বড় মিলিয়ে প্রায় লাখের উপর গাছ এবং ১৭০০ এর বেশি ঘর-বাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। এখানে অতিবৃষ্টির কারনে প্লাবিত হয়ে শ্যামনগর উপজেলার মোট ১৭৫০০ হেক্টর ঘের এলাকার মধ্যে ৩৫০০ হেক্টর ঘের এলাকার ২৬২.৫ মেট্রিকটন বিভিন্ন প্রজাতির মাছের ক্ষতি হয়েছে টাকার অংকে যার পরিমাণ প্রায় ৬.৫৬ কোটি টাকা, পশু সম্পদের মধ্যে উপজেলায় আনুমানিক ১০০ ছাগল ২৫ টি গরু ১৫ টি মুরগির খামার সহ প্রায় ৭৫০ টি মুরগি এবং ২২০ টি হাঁসের ক্ষতি হয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগে শ্যামনগরে কর্মরত মেহেদী হাসান ভয়েস অব সাতক্ষীরাকে জানান,শ্যামনগরে প্রায় ২০০ থেকে ২৫০ পয়েন্টে বৈদ্যুতিক সঞ্চালন লাইনের ক্ষতি হয়েছে সকল ক্ষতি মিলে এই বিভাগের প্রায় ১ কোটি টাকার সমপরিমাণ ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি জানান। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে গাছ উপড়ে যাওয়ার কারণে সড়কের আংশিক ক্ষতি হয়েছে। তবে বুলবুলের আঘাতে কোথাও বেঁড়িবাঁধ ভেঙে লোকালয়ে পানি প্রবেশের ঘটনা ঘটেনি।

বুলবুল পরবর্তী অবস্থা পর্যবেক্ষণে রোববার বিকালে শ্যামনগরে আসেন সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল ও পুলিশ সুপার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান।

এ সময় তাদের সাথে ছিলেন, এ ডি সি এস এম মাহমুদুর রহমান, এ এস পি (সার্কেল) জামিনুর রহমান, শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ কামরুজ্জামান, সহকারী কমিশনার ভুমি নাহিদ হাসান খাঁন, শ্যামনগর থানার ওসি নাজমুল হুদা, নৌ থানার ওসি অনিমেশ হালদার সহ বিভিন্ন প্রশাসনিক কর্মকর্তাবৃন্দ, কোষ্টগার্ড, নৌ বাহিনী, নৌ পুলিশ, পুলিশ, ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।

রোববার বিকালে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার শ্যামনগরের বিভিন্ন স্থান ঘুরে গাবুরা এলাকার দূর্গত মানুষের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরন করেন।

এসময় তিনি সামগ্রিকভাবে বুলবুল মোকাবেলায় কাজ করা প্রশাসন, বিভিন্ন এনজিও সংস্থা, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সহ স্থানীয় মানুষদের ধন্যবাদ জানিয়ে দূর্গত মানুষদের উদ্দেশ্যে বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আপনাদের জন্য পর্যাপ্ত ত্রান সামগ্রির ব্যবস্থা করেছেন, দ্রুততম সময়ের মধ্যে তা আপনাদের কাছে পৌছাবে।

এসময় তিনি স্থানীয় লোকদের টেকশই বেঁড়িবাঁধ নির্মাণের বিষয়ে প্রশ্নের জবাবে বলেন,শ্যামনগরে টেকশই বেঁড়িবাঁধ নির্মাণের জন্য ৫০০০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প অনুমোদনের কাজ চলছে, প্রকল্পটি অনুমোদন হয়ে গেলে এই এলাকায় দ্রুত টেকশই বেঁডিবাঁধ নির্মাণের কাজটি শুরু হবে।

#