সাতক্ষীরা সীমান্ত দিয়ে যাতে একটি চামড়াও পাচার না হয় সেজন্য বিজিবি কঠোর অবস্থানে


357 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা সীমান্ত দিয়ে যাতে একটি চামড়াও পাচার না হয় সেজন্য বিজিবি কঠোর অবস্থানে
সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৫ কলারোয়া ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

বিশেষ প্রতিনিধি :
সাতক্ষীরার ১৩৮ কিলোমিটার সীমান্ত দিয়ে যাতে একটি কোরবানির চামড়াও ভারতে পাচার না হতে পারে সেজন্য বিজিবি কঠোর অবস্থানে। বিজিবি’র হেড কোয়াটারের নির্দেশে প্রতিটি সীমান্ত এলাকায় সৈনিক সংখ্যা বৃদ্ধি করা হয়েছে। সীমান্ত এলাকায় চামড়া ব্যবসায়ীদের উপর বাড়ানো হয়েছে বাড়তি নজরদারি । বিশেষ করে সীমান্ত এলাকার চামড়া ব্যবসায়ীদেরকে সাফ জানিয়ে দেয়া হয়েছে, তারা কয়টা চামড়া কিনেছে এবং তা কোথায় কোথায় বিক্রি করেছে বিজিবিকে তার হিসেব দিতে হবে। এদিকে , সুন্দরবনের ভিতর গিয়ে যাতে চামড়া পাচার না হয় সে ব্যাপারেও পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিজিবি।

সাতক্ষীরা-৩৮ বিজিবি’র ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর নজির আহম্মেদ বকশী ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকমকে জানান, কোরবানির ঈদের আগে থেকেই সাতক্ষীরা-৩৮ বিজিবির আওতাধীন ১৪ টি বিওপি ক্যাম্পকে সতর্ক করা হয়েছে যাতে একটি কোরবানির চামড়াও ভারতে পাচার না হতে পারে। প্রতিটি সীমান্ত এলাকায় সৈনিক সংখ্যা বৃদ্ধি করা হয়েছে। সীমান্ত এলাকায় যেসব চামড়া ব্যবসায়ী রয়েছে তাদেরকে বলে দেয়া হয়েছে তারা কয়টি চামড়া কিনেছে এবং তা কোথায় বিক্রি করেছে স্থানীয় বিওপি ক্যাম্পকে সে ব্যাপারে তথ্য জানাতে। তিনি বলে, সাতক্ষীরা সীমান্ত দিয়ে কোন চামড়া ভারতে পাচার হতে দেয়া হবে না।

এদিকে, সাতক্ষীরার নীলডুমুর ৩৪ বিজিবি’র লে: কমান্ডার তানভীর ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকমকে জানান, সীমান্ত দিয়ে যাতে কোন চামড়া পাচার না হয় সেজন্য প্রায় দ্বিগুন সৈন্য মোতায়েন করা হয়েছে। ৩৪ বিজিবির আওতাধীন ১৭ টি বিওপি ক্যাম্প এ ব্যাপারে সতর্ক রয়েছে। কোন অবস্থাতেই এবার কোরবানির চামড়া ভারতে পাচার হতে দেয়া হবে না। তিনি আরও বলেন, সুন্দরবনের ভিতর নদী পথে যাতে চামড়া পাচার না হয় সেজন্য পানিপথেও বিজিবি’র টহল জোরদার করা হয়েছে।

তবে সীমান্তের একাধিক স্থানে খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, সীমান্তবর্তী এলাকার চামড়া ব্যবসায়ীরা এখনও চামড়া দেশীয় বাজারে বিক্রি করেনি। সীমান্ত এলাকায় তা মজুদ করে রেখেছে। সুযোগ বুঝে এসব চামড়া ভরতে পাচার করার চেষ্টা করছে এসব ব্যবসায়ীরা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সাতক্ষীরা সীমান্তের একাধিক ব্যক্তি ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকমকে জানান, প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ভারতীয় ব্যবসায়ীরা চামড়া কেনার জন্য বাংলাদেশে টাকা বিনিয়োগ করেছে। তারা সীমান্ত এলাকার বেশ কিছু মানুষের কাছে অগ্রীম টাকাও পাঠিয়েছে বলে জানাগেছে। সুযোগ বুঝে চামড়া ব্যবসায়ীরা এসব চামড়া ভারতে পাচার করার চেষ্টা করবে বলে প্রস্তুতি নিচ্ছে।

তবে বিজিবি কঠোর অবস্থানে থাকতে সেই সুযোগ ব্যবসায়ীরা পাবে না।