সাতক্ষীরার ৫ ব্যবসায়ীসহ খুলনা বিভাগের ৫৫ ব্যবসায়ী সেরা করদাতা হিসেবে সন্মননা পেলেন


491 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরার ৫ ব্যবসায়ীসহ খুলনা বিভাগের ৫৫ ব্যবসায়ী সেরা করদাতা হিসেবে সন্মননা পেলেন
সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

মোজাফ্ফর রহমান : জাতীয় অর্থনীতিতে অবদান রাখায় জাতীয় আয়কর দিবসে সাতক্ষীরার ৫ ব্যবসায়ী সেরা পুরুষ্কার পেয়েছেন। জাতীয় আয়কর দিবস-২০১৫ দিবস উপলক্ষ্যে সেরা করদাতাদের সন্মননা অনুষ্ঠানে মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ সাতক্ষীরার ৫ ব্যবসায়ীসহ খুলনা বিভাগের ৫৫ জন ব্যবসায়ীর হাতে  সন্মননা পুরুষ্কার ও ক্রেষ্ট তুলে দেন। সাতক্ষীরার সেরা করদাতা ব্যবসায়ীরা হলো আল ফেরদাউস, মো: জাহিদুল ইসলাম, কল্যাণ বসু, এসএম  গোলাম বারী,  মো: আফাজ উদ্দিন।
মঙ্গলবার বেলা ১১ টায় খুলনার খালিশপুর নৌ-বাহিনীর তিতুমীর ফেয়ারওয়ে অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত আয়কর দিবসের সেরা আয়কর সন্মননা প্রাপ্ত ব্যবসায়ীদের সন্মননা ও ক্রেষ্ট প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মহস্য ও প্রাণী সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ বলেন, বঙ্গবন্ধ কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, দেশের উন্নয়ন হচ্ছে। বিশ্বের উন্নয়নশীল বহু দেশ এখন বাংলাদেশ এগিয়ে যাওয়ার বিষয়ে নানা ধরনের প্রসংসা করছে।
তিনি বলেন, দেশের উন্নয়নের স্বার্থে ব্যবসায়ীসহ সকল শ্রেনীর মানুষকে আয়কর দিতে হবে। তিনি  জাতীয় অর্থনীতিতে রাজস্ব আহরণের অন্যতম উৎস্য হলো আয়কর এমন মন্তব্য করে প্রতিমন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ বলেন, এ জন্য করের আওতা বাড়ানোর কোন বিকল্প নেই।
এবারের আয়কর দিবসের প্রতিপাদ্য হলো “সমৃদ্ধির সোনালী দিন, আনতে হলে আয়কর দিন”। প্রতিমন্ত্রী বলেন, রাজস্ব বৃদ্ধি ছাড়া দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। সরকারের নিয়মিত ব্যয় নির্বাহসহ কর দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে।

বর্তমান সরকার কর ব্যবস্থাকে আধুনিক, গতিশীল, যুগোপযোগী এবং করবান্ধব করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ বলেন, বর্তমান সরকার ই-পেমেন্ট পদ্ধতি চালুর ফলে করদাতারা সহজে কর দিতে পারছেন। রাষ্টীয় কোষাগারকে সমৃদ্ধ করতে জতীয় রাজস্ব বোর্ড গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা পালন করছে। ব্যবসায়ীরা যাতে কর প্রদানকালে হয়রানী না হয় সে জন্য তিনি সংশি¬ষ্ট সকলকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন প্রতিমন্ত্রী। মহস্য ও প্রাণী সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করার লক্ষ্য নিয়ে বর্তমান সরকার কাজ করছে। এ জন্য তিনি যার যার অবস্থান দেশের উন্নয়নে কাজ করার আহবান জানান।
খুলনা কর অঞ্চলের কর কমিশনার সুনীল  কুমার সাহার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন জতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য (কর জরীপ ও  পরিদর্শন) মো:  লোকমান চৌধুরী, পুলিশের খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি এস এম  মনির-উজ-জামান, বিপিএম, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক)  মোহাম্মদ ফারুক হোসেন, যশোর কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট  কমিশনার মো: জামাল হোসেন এবং খুলনা চেম্বারের সভাপতি  কাজী আমিনুল হক। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন খুলনা কর অপীলে কমিশনার প্রশান্ত কুমার রায়।
অনুষ্ঠানে সাতক্ষীরায় সেরা কর প্রদানকারী হিসেবে ব্যবসায়ী আল ফেরদাউস, মোঃ জাহিদুল ইসলাম, কল্যাণ বসু, এসএম  গোলাম বারী,  মোঃ আফাজ উদ্দিন কে ক্রেস্ট ও সন্মননা প্রধান করা হয়। অনুষ্ঠানে সিটি কর্পোরেশন এলাকার  দীর্ঘ মেয়াদী এবং সর্বোচ্চ কর প্রদানকারী করদাতা মোঃ তহিদুল ইসলাম আজাদ, এস এম আজিজুল আলম, আব্দুল হামিদ সরদার এবং যশোরের বিশিষ্ট ব্যবসাযী ও রাজনৈতিক নেতা আলী রেজা রাজু। এর আগে সকালে খুলনার বয়রা কর ভবন হতে জতীয় রাজস্ব বোর্ড এর  সদস্য (কর জরীপ ও  পরিদর্শন) মো: লোকমান চৌধুরীর  নেতৃত্বে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে শিববাড়ী মোড় ঘুরে  কর ভবন প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়।