সাতক্ষীরায় অবৈধ ক্লিনিক ব্যবসা জমজমাট : মাসোহারা যাচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগে !


740 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় অবৈধ ক্লিনিক ব্যবসা জমজমাট : মাসোহারা যাচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগে !
জানুয়ারি ২২, ২০১৬ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

নাজমুল হক :
রাতারাতি নাম পরিবর্তন হচ্ছে সাতক্ষীরা শহরের কয়েকটি ক্লিনিকের। প্রশাসনের নাকের ডগায় নাম সর্বস্ব এসব ক্লিনিক পরিচালিত হচ্ছে সিভিল সার্জনের কতিপয় কর্মকর্তাকে নিয়মিত মাসোহারা দিয়ে। অভিযোগ রয়েছে, এসব ক্লিনিকে সেবার নামে অর্থ বাণিজ্য হয় বেশি। অনুমোদনহীন এসব ক্লিনিক পরিচালিত হলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে না।

সূত্র জানায়, শহরের ক্লিনিক পাড়া নামে খ্যাত সদর হাসপাতালের সামনে সম্প্রতি ডিজিটাল মেডিকেল সেন্টার নামে নাম সর্বস্ব একটি ক্লিনিক প্রতিষ্ঠিত হয়। ক্লিনিকের মালিক ছিলো আজহারুল ইসলাম শফি। ক্লিনিক প্রতিষ্ঠার পরে ক্লিনিকের কার্যক্রম নিয়মিত চললেও রেজিস্ট্রেশন করা হয়নি।

সূত্রগুলো জানায়, আজহারুল ইসলাম ও শফিকুল ইসলাম শফি এর আগের নোভা ক্লিনিক, নাফ ক্লিনিক প্রতিষ্ঠা করেন। সেগুলো রোগী মৃত্যুর কারণে বন্ধ হলে প্রতিষ্ঠা করেন আল সালাফিয়া ক্লিনিক। এ নিয়ে দৈনিক কালের চিত্রে সংবাদ প্রকাশিত হলে সেটিও বন্ধ করে দেয়। পরে প্রতিষ্ঠা করেন ডিজিটাল মেডিকেল সেন্টার।

সূত্র জানায়, ডিজিটাল মেডিকেল সেন্টার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অনুমতি পত্র নিয়ে সকল নিয়ম-নীতি তোয়াক্কা করে দেদারসে চালিয়ে যাচ্ছে অর্থ বাণিজ্য। নিম্নমানের পরিবেশ, পর্যাপ্ত জনবল নিয়োগ না করেই চলছে ক্লিনিক। সেখানে ক্লিনিক আছে, সেখানে ডাক্তার নেই। বেড আছে, বালিশ নেই। রোগী আছে, নার্স নেই। সেবার পরিবর্তে ক্লিনিকগুলোতে অর্থলোভীরা করছে বাণিজ্য।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ডিজিটাল সেন্টারের ছবি তুললে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ তাদের ব্যবহৃত সাইন বোর্ড থেকে ডিজিটাল মেডিকেল নামটি শুক্রবার সকালে মুছে ফেলে। ফলে এখন স্বদেশ ক্লিনিকের উপরের সাইনবোর্ডে শুধু সেন্টার নাম আছে।

সূত্র আরো জানায়, সিভিল সার্জন অফিসের এক কর্মচারীকে ম্যানেক করে পদ্মা ডায়াগনস্টিক সেন্টার হিসেবে অনুমোদনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ঐ নাম সর্বস্ব ক্লিনিকের মালিক। এ বিষয়ে ক্লিনিকের মালিক আজাহারুল শফির মোবাইলে ফোন দিয়ে পাওয়া যায় নি। তবে ভুক্তভোগীরা এ সব অবৈধ ক্লিনিক বন্ধের দাবী জানিয়েছে।