সাতক্ষীরায় অবৈধ যানবাহন ও উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে


484 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় অবৈধ যানবাহন ও উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে
জানুয়ারি ১৭, ২০১৯ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

আব্দুর রহমান ::
সাতক্ষীরা জেলা আঞ্চলিক পরিবহন কমিটির (আরটিসি) সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আরটিসির সভায় জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা ২ আসনের সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি, জেলা পুলিশ সুপার মো. সাজ্জাদুর রহমান, জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি ও প্রেসক্লাবের সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, সাতক্ষীরা পৌরসভার মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতি, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ছাইফুল করিম সাবু, বিআরটিএ’র উপ পরিচালক নাসিরুল আরিফ, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সজল মোল্যা, সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম মিনি, আব্দুর রহমান প্রমুখ। সভায় জানানো হয়, সাতক্ষীরা শহরকে একটি নান্দনিক ও যানজটমুক্ত শহরে রুপ দিতে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে অবৈধ যানবাহন, অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চলমান রয়েছে। এ অভিযান আগামী ৩ মাস অব্যাহত থাকবে। সাতক্ষীরা পৌর এলাকায় ৪৯৫টি অনুমোদিত ইজিবাইক ছাড়া অনুমোদন বিহীন কোন প্রকার অবৈধ যানবাহন চলচল করতে পারবে না। এছাড়া সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে বাস ছেড়ে যত্রতত্র দাড়িয়ে যাত্রী উঠানো-নামানো যাবে না। সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে আশাশুনিগামী বাস ছেড়ে পৌর দিঘীর ধারে ৩মিনিট অবস্থান করতে পারবে। কালিগঞ্জগামী বাস ছেড়ে সঙ্গীতা মোড়ে ৩মিনিট অবস্থান করতে পারবে। পাটকেলঘাটা-চুকনগরগামী বাস ছেড়ে নারকেলতলা মোড়ে ৩মিনিট অবস্থান করতে পারবে। কলারোয়াগামী বাস ছেড়ে কদমতলায় ৩মিনিট অবস্থান করতে পারবে। অতিরিক্ত সময় নিলে জরিমানা করা হবে। এছাড়া খুলনা রোড মোড়, নিউ মার্কেট মোড়, জজকোর্টের সামনে কোন প্রকার যানবাহন থামা, অবৈধ যানবাহন চলাচল ও অবৈধ স্থাপনা থাকবে না। ইতোমধ্যে, সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গা দখল করে অবৈধভাবে নির্মিত টিনের ঘর ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। পৌর এলাকায় মাহিন্দ্রা, ইঞ্জিনচালিত ভ্যান, ইজিবাইক, নছিমন, করিমন, গ্রাম বাংলাসহ কোন প্রকার অবৈধ যানবাহন চলাচল করতে পারবে না। এসব যানবাহন চলবে পৌর এলাকার বাইরে। শহরের অদূরে কদমতলা, বিনেরপোতা, আলিয়া মাদ্রাসা মোড়, আলিপুর চেকপোস্ট রেখে এসব যানবাহন চলাচল করবে। সভায় সাতক্ষীরা ২ আসনের সাংসদ মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি বলেন, সুন্দর সাতক্ষীরা উপহার দিতে হলে সকলকে সহযোগিতা করতে হবে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বাসযোগ্য শহরে রুপান্তিত করা সম্ভব। সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল জানান, অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে এবং আগামী ৩ মাস এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। কোন অবস্থায় এর পরিবর্তন হবে না। জেলা পুলিশ সুপার সাজ্জাদুর রহমান বলেন, অনুমোদিত ইজিবাইকগুলোর জন্য নির্দিষ্ট স্থান থাকবে। কোন অবস্থায় অবৈধ যানবাহন চলাচল করতে দেওয়া হবে না। ট্রাক ড্রাইভাররা হেলপার দিয়ে গাড়ী চালালে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া হাইড্রোলিক হর্ণ থাকলে খুলে ফেলার অনুরোধ জানান তিনি। জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ বলেন, ইজিবাইক, মাহিন্দ্র, ইঞ্জিন ভ্যান, নছিমন, করিমনসহ অবৈধ যান চলাচল বন্ধ হলে শহরে আর কোন যানজট থাকবে না। তবে বাস যাত্রীদের সুবিধার্থে নির্ধারিত যাত্রী ছাউনি রাখার দাবী জানান তিনি। সভায় জেলা আঞ্চলিক পরিবহন কমিটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।