সাতক্ষীরায় অষ্টম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রী অপহরণ : চার জনের নামে মামলা


1184 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় অষ্টম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রী অপহরণ : চার জনের নামে মামলা
জুলাই ৯, ২০১৭ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

আসাদুজ্জামান ::
সাতক্ষীরায় অষ্টম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রী অপহরনের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। অপহৃত স্কুলছাত্রীর বাবা শহরের সুলতানপুন এলাকার ইয়াছিন আলী বাদী হয়ে গত ৩ জুলাই আশাশুনি উপজেলার বিছট গ্রামের নূর আলীর ছেলে আলমগীর হোসেনসহ চার জনের নাম উল্লেখ করে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি অপহরন মামলা দায়ের করেন। এর আগে গত ২৬ জুলাই ঈদুল ফিতরের দিন ওই স্কুল ছাত্রী অপহরন হয়। তবে, থানায় মামলা দায়েরের এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও আজও সে উদ্ধার হয়নি।


মামলার বাদী ইয়াছিন আলীর ছেলে রিংকু জানান, তার বোন সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী। তাদের বাড়ির পাশে আশাশুনি উপজেলার আনুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর আলম লিটনের বাড়িতে কাজ করতো একই উপজেলার বিছট গ্রামের নূর আলীর পুত্র আলমগীর হোসেন। স্কুলে যাওয়া-আসার পথে আলমগীর তার বোনকে দেখে প্রায়ই উত্যক্ত করতো। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার এক পর্যায়ে রিংকু তার বোনকে উত্যক্ত না করতে আলমগীরকে নিষেধ করে। এতে আলমগীর ক্ষিপ্ত হয়ে তার বোনকে অপহরণ করার হুমকি দেয়। এরই জের ধরে ঈদের দিন বিকালে অপহৃত ওই স্কুল ছাত্রী তার ভাগ্না তৌহিদকে নিয়ে বাড়ির পাশে রাস্তায় বেড়াতে আসলে আলমগীর ও তার বন্ধু শহরের সুলতানপুর এলাকার সালাউদ্দীনসহ চারজন তাকে জোর পূর্বক অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে তার ভাগ্না তৌহিদ বাড়িতে যেয়ে বিষয়টি জানায়। এর পর থেকে রিংকু ও তার বাড়ির লোকজন তার বোনকে খোঁজা খুঁজি করতে থাকে। অনেক খোঁজা খুঁজির পরও তারা তাকে কান সন্ধ্যান পায়নি। কোন উপায় না পেয়ে এক পর্যায়ে রিংকুর পিতা ইয়াছিন আলী বাদী  হয়ে গত ৩ জুলাই সাতক্ষীরা সদর থানায় চার জনের বিরুদ্ধে একটি অপহরন মামলা দায়ের করেন ।
সাতক্ষীরা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মারুফ আহমেদ মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অপহৃত স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধারে ও আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে। ###