সাতক্ষীরায় আমেরিকা ফেরত যুবকের শরীরে করোনা ভাইরাসের গুজব !


727 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় আমেরিকা ফেরত যুবকের শরীরে করোনা ভাইরাসের গুজব !
মার্চ ১৮, ২০২০ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর স্বাস্থ্য
Print Friendly, PDF & Email

॥ এম কামরুজ্জামান ॥

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার উপসর্গ নিয়ে আমেরিকা থেকে এক মেডিকেল শিক্ষার্থী সাতক্ষীরার তালার মাগুরার বাড়িতে এসেছেন বলে গুজব ছড়িয়েছে গ্রামবাসী। পরে ওই শিক্ষার্থীকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

বুধবার (১৮ মার্চ) দুপুর ১২টার দিকে তালার স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে জানানো হয়, আমেরিকা ফেরত ওই শিক্ষার্থীর শরীরে করোনার উপসর্গ যেমন; সর্দি-কাশি-জ্বও,গলা ব্যাথা রয়েছে। ওই শিক্ষার্থী (২৫) সাতক্ষীরার তালা সদর ইউনিয়নের বাসিন্দা। তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

জানাগেছে, গত ১২ মার্চ সকাল ৭টার দিকে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে সাতক্ষীরায় পৌঁছান ওই শিক্ষার্থী। গত কয়েকদিন সুস্থ থাকলেও হঠাৎ তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন।

তবে ওই শিক্ষার্থীর বাবার দাবি, তার সন্তান সম্পূর্ণ সুস্থ রয়েছে। জ্বর-সর্দি-কাশি কিছুই নেই তার সন্তানের। গ্রামের মানুষ করোনায় আক্রান্ত বলে গুজব রটিয়ে দিয়েছে। এজন্য তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

তালা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা রাজিব সরদার বলেন, আমেরিকার একটি মেডিকেলের ছাত্র ওই ব্যক্তি। কয়েকদিন আগে আমেরিকা থেকে বাড়িতে আসেন তিনি। করোনার উপসর্গ যেমন; সর্দি-কাশি-জ্বর.গলাব্যাথা রয়েছে তার। তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে।

তিনি বলেন, পরীক্ষা-নিরীক্ষার ব্যবস্থা না থাকায় ওই শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত কি-না তা নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। তাকে বাড়ি থেকে বের হতে নিষেধ করা হয়েছে। বাড়ি থেকে বের হলে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন ডা: হুসাইন সাফায়াত ভয়েস অব সাতক্ষীরাকে বলেন, করোনা আক্রান্ত হয়েছে এটা নিশ্চিত করার জন্য কোন ধরনের প্রযুক্তি আমাদের হাতে নেই। ওই শিক্ষার্থী আমেরিকা থেকে তার বাড়িতে এসেছেন। সিমটম বলতে তার সর্দি-কাশি-জ্বর ও গলা ব্যাথা রয়েছে। তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তার শরীরের সিমটম আমরা আইইডিসিআর-এ পাঠানোর ব্যবস্থা করেছি। তারা যেভাবে বলবে সেভাবে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

ডা: হুসাইন সাফায়াত আরো বলেন, সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ১০ টি, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১০টি এবং প্রতিটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্য্রে ৫টি করে বেড প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়া ডাক্তার ও সেবিকাদের জন্য ৩২০ সেট (পিপিই) ব্যক্তিগত সুরক্ষা দ্রব্যাদি মজুদ আছে।

#