সাতক্ষীরায় আ’লীগ নেতা সোলায়মান হত্যা মামলার প্রধান আসামি ওহাব গ্রেপ্তার


679 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় আ’লীগ নেতা সোলায়মান হত্যা মামলার প্রধান আসামি ওহাব গ্রেপ্তার
জুন ১৪, ২০২১ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার::

হত্যা, অস্ত্রসহ আনুমানিক অর্ধশত মামলার আসামি আলোচিত আলী পেয়াদাকে গ্রেপ্তার করেছে সাতক্ষীরা সদর থানা পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সাতক্ষীরা সদর থানার ওসির নেতৃত্বে এ এস আই জামাল সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে সোমবার ভোররাতে সাতক্ষীরা শহরের পিটিআই মাঠ সংলগ্ন মোতালেবের বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে।
ওহাব আলী পেয়াদা নলতার আওয়ামী লীগ নেতা সোলাইমান হত্যা মামলার প্রধান আসামী।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালে কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা ইউনিয়নের ঝায়ামারির বিলের ১০৭ বিঘা জমি নিয়ে কালিগঞ্জের নলতা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড তত্কালীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সোলায়মান গাজীসহ ৪৪ জনের একটি গ্রুপে সঙ্গে ঝায়ামারি গ্রামের ওহাব পেয়াদাও তার শরীকদের বিরোধ রয়েছে।

মামলায় হেরে যাওয়ার পরও ২০ ঘের ভূমিহীন বসিয়ে ১০৭ বিঘা জমির মধ্যে প্রায় ৭০ বিঘা জমি দখলে রাখেন ওহাব পেয়াদা। এ নিয়ে ওহাব পেয়াদা কয়েকবার সোলায়মানকে হত্যারও হুমকি দেয়। ১৯ নভেম্বর ২০১৭ রাত সাড়ে ৮টার দিকে বিশ্বস্ত কোন লোকের রাঙাশিশা ব্রীজের পাশে ডেকে নিয়ে রাতভর আটক রাখার পর সোমবার ভোর চারটার দিকে সোলায়মানকে আশাশুনির কৈখালি পানির ট্যাঙ্কির পাশে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়ি বাঁধের উপর জবাই করে হত্যা করা হয়।

পরদিন নিহতের ভাই সামিউল্লাহ বাদি হয়ে ওহাব আলী পেয়াদাসহ ১৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ৮/১০ জনের নামে আশাশুনি থানায় মামলা দায়ের করেন।
এদিকে দীর্ঘদিন পরে আলোচিত এই হত্যা মামলার আসামী গ্রেপ্তার হওয়ায় সদর থানা পুলিশকে ধন্যবাদ জানিয়েছে মামলার বাদী সোলাইমান এর ভাই সামিউল্লাহ গাজী। সানাউল্লাহ গাজী বলেন মামলার তদন্তভার সিআইডি থাকলেও সিআইডি পুলিশ তাকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

#