সাতক্ষীরায় আসামী না হয়েও পত্রিকায় বিজিবি হত্যা মামলার আসামী বানানোর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন


368 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় আসামী না হয়েও পত্রিকায় বিজিবি হত্যা মামলার আসামী বানানোর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন
অক্টোবর ২২, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সাতক্ষীরায় আসামী না হয়েও পত্রিকায় বিজিবি হত্যা মামলার আসামী বানানোর ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়েছেন ভোমরা বন্দরের একজন পেয়াজ ব্যবসায়ী। বৃহস্পতিবার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই প্রতিবাদ জানান সদর উপজেলার পদ্মশাখরা গ্রামের বাবুর আলী গাজীর ছেলে পেয়াজ ব্যবসায়ী কবির হোসেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে কবির হোসেন জানান, বিগত ১০/১২ বছর ধরে তিনি সাতক্ষীরার ভোমরা বন্দরে কবির স্টোর নামে একটি মুদি দোকানের ব্যবসা করে আসছেন। বর্তমানে সেটি তার খালাতো ভাই সিদ্দিকের সাথে যৌথভাবে তানিয়া স্টোর নামে চলছে এবং তিনি আলাদা ভাবে ভোমরা বন্দরে পেয়াজ কেনা বেচার কাজ করেন। কিন্তু গত ২২ অক্টোবর সাতক্ষীরা থেকে প্রকাশিত দৈনিক দক্ষিণের মশাল পত্রিকায় তাকে আটকের কথা বলে “তিন লক্ষাধিক টাকা লেনদেনের অভিযোগ, বিজিবি হত্যার আসামী আটকের পর মুক্ত” শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। সংবাদটি সম্পূর্ন মিথ্যে, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। তিনি প্রকাশিত উক্ত খবরের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

তিনি বলেন, সাতক্ষীরায় পিকআপ চাপা দিয়ে একজন বিজিবি সদস্য হত্যার ঘটনায় সদর থানায় যে মামলা হয়েছিল (জিআর-৯২৫/১৩) ওই মামলার এজাহারে তার নাম ছিল না। পরে বিজিবি আরো যে ৪১ জনের নাম মামলায় অন্তভূক্ত করার জন্য আদালতে আবদেন করেছিল ওই তালিকার ৩৯ নম্বরে সদর উপজেলার ছনকা গ্রামের বাবুর আলীর ছেলে কবির হোসেন নামের একজন আসামী রয়েছে। কিন্তু তার বাড়ি পদ্মশাখরা গ্রামে। ওই মামলায় তিনি কোন আসামী ছিলেন না। কাজেই তাকে গ্রেফতারের কোন প্রশ্নই উঠে না।

কিন্তু পত্রিকায় তাকে বিজিবি হত্যা মামলার আসামী বানানো হয়েছে যা খুবই দুঃখজনক। ভবিষ্যতে এধরনের মিথ্যে সংবাদ প্রকাশের ঘটনার যাতে আর না ঘটে সেজন্য তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেন।