সাতক্ষীরায় উন্নয়ন সহযোগিতা সংক্রান্ত জাতীয় নীতিমালা প্রনয়ণ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত


291 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় উন্নয়ন সহযোগিতা সংক্রান্ত জাতীয় নীতিমালা প্রনয়ণ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত
জানুয়ারি ২৪, ২০১৬ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

নাজমুল হক :
অর্থ মন্ত্রনালয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দীন বলেছেন, সরকারের সকল নীতি মাঠ পর্যায়ে উন্নয়নের মাধ্যমে বাস্তবায়ন হয়। বাংলাদেশ বর্তমানে নি¤œ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। এটিকে ২০৪১ সালে উন্নত দেশে রূপান্তরিত করার জন্য সরকার কাজ করে যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, দেশ আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশে চরম দরিদ্র্য সীমার নিচে বর্তমানে ১১ ভাগে এসেছে। উন্নয়নের ফলে সমাজে বিদ্যমান অসমতা কমে যাচ্ছে। প্রান্তিক পর্যায়ে সামাজিক নিরাপত্তা জোরদার করা হচ্ছে। ঝুঁকিপূর্ণ মানুষকে রক্ষা করার জন্য দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ করা হচ্ছে।

রোববার সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ‘খসড়া উন্নয়ন সহযোগিতা সংক্রান্ত জাতীয় নীতিমালা প্রনয়ণ’ শীর্ষক  পরামর্শ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব  কথা বলেন।

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসানের সভাপতিত্বে পরামর্শ সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মনোয়ার আহমেদ। খসড়া নীতিমালা উপস্থাপন করেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের উপ সচিব মো. রেজাউল বাসার সিদ্দিক। বক্তব্য রাখেন ইআরডি’র উপসচিব রফিক আহমেদ সিদ্দিক, সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর লিয়াকত পারভেজ, অতিরিক্তি পুলিশ সুপার মোদাদছছের হোসেন, তালা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সনৎ কুমার ঘোষ, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সাধারণ সম্পাদক এম কামরুজ্জামান প্রমুখ।

পরামর্শ সভায় বক্তারা বলেন, দাতা সংস্থার কনসালটেন্ট নিয়োগে বিপুল পরিমাণ অর্থের ব্যায় করা হয়। বিদেশী কনসালটেন্ট নিয়োগ দিলে বিপুল পরিমাণ অর্থ বিদেশে যায়। আবার কনসালটেন্টের সম্মানীও বেশি। ফলে অনেক ক্ষেত্রে কাজের চেয়ে পরামর্শ সম্মানী বেশি যায়।

তারা আরো বলেন, এনজিওদের অর্থের কোন মনিটরিং করা হয় না। এর ফলে তাদের অর্থ কোথা থেকে আসছে, কোন খাতে ব্যয় হচ্ছে, কত ব্যয় হচ্ছ্ েতার কোন তথ্য থাকে না। ফলে এ সেক্টরে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা সৃষ্টি হচ্ছে না। বক্তারা সাতক্ষীরার উন্নয়নে বেশি বরাদ্দ দেওয়ার জন্য দাবী জানিয়ে বলেন, সাতক্ষীরা সম্ভাবনার জেলা। এ জেলা দেশকে শুধু দিয়েই যাচ্ছে। কিন্তু পাওয়ার ক্ষেত্রে অনেক কম। সুতরাং উন্নয়ন বঞ্চিত এ জেলার উন্নয়নে সকলকে কাজ করার আহবান জানানো হয়। পরামর্শ সভার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সহকারী কমিশনার সুফিয়া আক্তার।