সাতক্ষীরায় এক মহিলার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ক্রয়কৃত জমি জবরদখলের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন


343 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় এক মহিলার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ক্রয়কৃত জমি জবরদখলের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন
এপ্রিল ২৩, ২০১৬ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সাতক্ষীরা সদর উপজেলার লাবসা ইউনিয়নের থানাঘাটা গ্রামের আব্দুস সবুরের স্ত্রী নাজমা খানমের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ক্রয়কৃত জমি জবরদখলের অভিযোগ উঠেছে। শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের প্রবাসী কল্যাণ শাখার অফিস সহায়ক আলাউদ্দিন ১৭জন ক্রেতার পক্ষে এই অভিযোগ করেন।

এ সময় লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ২০১৬ সালে আমরা ১৭জন ক্রেতা পৃথক পৃথকভাবে মাগুরা গোপীনাথপুর মৌজার সিএস ৬৭০, এসএ ৭১৫ খতিয়ানের ৯৬ দাগে ৮৫ শতক ও ৯৭ দাগে ২১ শতক জমি লাবসা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শাহাদাৎ হোসেনের কাছ থেকে ক্রয় করে ভোগদখল করতে থাকি। এর মধ্যে আমার ২১ শতক, মনজেলের ৪ কাঠা, হাসেমের ৪ কাঠা, হাসিনার ৮ কাঠা, রহিম ও করিমের ২ কাঠা, আলমের ২ কাঠা, মনিরুজ্জামানের ৪ কাঠা, মোখলেসুরের সাড়ে ৪ কাঠাসহ ১৭জনের পৃথক পৃথক অংশ রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করে বলা হয়, শাহাদাৎ হোসেনের মৃত্যুর পর কুচক্রী আকবার উকিলের পরামর্শে নাজমা খানমসহ তার বোনরা ওই সম্পত্তি নিজেদের দাবি করে আমাদের বিরুদ্ধে মামলা করে হয়রানি ও জবরদখলের চেষ্টা করে। আদালত তার বিপক্ষে রায়ও দিয়েছে। তারপরও ষড়যন্ত্রের  ধারাবাহিকতায় নাজমা খানম সম্প্রতি আমাদের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করে সাংবাদিকদের মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য পরিবেশন করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি হয়রানি থেকে মুক্তি পেয়ে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। ##