সাতক্ষীরায় কঠোর নিরাপত্তায় মধ্যদিয়ে শুরু হলো এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা


362 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় কঠোর নিরাপত্তায় মধ্যদিয়ে শুরু হলো এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা
এপ্রিল ৩, ২০১৬ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

এস এম সেলিম হোসেন :
আজ শুরু হচ্ছে এইচ.এস.সি বা সমমানের পরীক্ষা। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের আওতায় এইচ এস সি, কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীন এইচ এস সি ব্যবসা ব্যবস্থাপনা, এইচ এস সি ভোকেশনাল এবং মাদ্রসা শিক্ষা বোর্ডের অধীন আলিম পরীক্ষা। জেলায় এইচ এস সি বা সমমানের মোট ৩৭ টি কেন্দ্রের সর্বমোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২০হাজার ৭৩৪ জন। এর মধ্যে এইচ এস সি পরীক্ষায় ২১ টি কেন্দ্রের মোট পলীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৫ হাজার ৩২৮ জন। এইচ এস সি বি এম শাখায় ৯ টি কেন্দ্রের মোট পলীক্ষার্থীর সংখ্যা ৩ হাজার ৬২২ জন। এইচ এস  সি ভোকেশনাল পরীক্ষায় ১ টি কেন্দ্রের মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২শত ১৪ জন এবং আলিম পরীক্ষায় ৬ টি কেন্দ্রের মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা  ১হাজার ৫শত ৭৯জন। সাতক্ষীরা সদর উপজেলায় এইচ এসসি পরীক্ষায় সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ কেন্দ্রে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১ হাজার ১শত ৫৪জন, সরকারি  মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা  ১ হাজার ৫ শত ৯৪ জন, সিটি কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর  সংখ্যা  ১ হাজার, সাতক্ষীরা দিবা-নৈশ কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৭শত ৮৫জন, সাতক্ষীরা আলিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৩ শত ৮২জন, এইচ এসসি বিএম শাখায় পি এন স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৭১২জন, ভোকেশনাল শাখায় সরকারি টেকনিক্যাল স্কুলএন্ড কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২১৪জন, তালা উপজেলায় এইচ এস সি পরীক্ষায় তালা সরকারি কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৭০৮জন, কুমিরা মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৪৪০জন, পাটকেলঘাটা হারন অর  রশিদ কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৪৫২জন, আলিম পরীক্ষায় তালা ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ২১৪জন, বিএম শাখায় কুমিরা মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৪৯২জন, কালিগঞ্জ উপজেলায় এইচ এস সি পরীক্ষায় কালিগঞ্জ কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৬৬১জন, রকেয়া মুনসুর মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৪৮০জন, নলতা আহসানিয়া মিশন রেসিঃ কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ৬০৭জন, বিএম শাখায় রকেয়া মুনসুর মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২১৯জন, কালিগঞ্জ কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২৮৫জন। কলারোয়া উপজেলায় এইচ এস সি পরীক্ষায় কলারোয়া সরকারি কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ৫০৪জন, শেখ আমানুল্লাহ কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ৪১৫জন, বঙ্গবন্ধু মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ১ হাজার ৯৩ জন, হাজী নাসির উদ্দীন কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী কম থাকায় যশোর বোর্ড কর্তৃক আপতত স্থগিত করা হয়েছে। আলিম পরীক্ষায় কলারোয়া আলিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ১০১জন, বিএম শাখায় শেখ আমানুল্লাহ কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৮০০জন, আশাশুনি উপজেলায় এইচ এস সি পরীক্ষায় আশাশুনি কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ৩২১জন, আশাশুনি মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ৫৮০জন, দরগাহপুর এসকেআর এইচ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ৮৮০জন, বিএম শাখায় আশাশুনি কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ২৯১জন, আলিম পরীক্ষায় আশাশুনি আলিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ২২৩জন, গুনাকরকাটি খায়রিয়া আজিজিয়া কামিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ১৯১জন। দেবহাটা উপজেলায় এইচ এস সি পরীক্ষায় খান বাহাদুর আহসান উল্লাহ কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী ৫৭৬জন, হাজী কিয়ামুদ্দিন মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ৩৫২জন, বিএমশাখায় দেবহাটা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ২৬৩জন। শ্যামনগর উপজেলায় এইচ এস সি পরীক্ষায় শ্যামনগর সরকারি মহসিন কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ৯৮৬জন, শ্যামনগর আতরজান মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১ হাজার ৩০৭ জন, বিএম শাখায় শ্যামনগর আতরজান মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী সংখ্যা ৫৬০জন, আলিম পরীক্ষায় শ্যামনগর কেন্দ্রীয় মাদ্রাসায় পরীক্ষার্থী সংখ্যা ৪৬৮জন। উল্লেখ্য পরীক্ষা সুষ্ঠু, নকলমুক্ত ও দুর্নীতিমুক্ত করতে পাবলিক পরীক্ষা অপরাধ আইন ১৯৮০ প্রয়োগ করার মাধ্যমে নকলমুক্ত করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও প্রতিষ্ঠান প্রধানকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পরীক্ষা কেন্দ্রে  ৫০ গজের মধ্যে জনসাধারণের প্রবেশ সম্পূর্ণ রূপে নিষেধ করার জন্য ফৌজদারী দন্ডবিধি ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে এবং পরীক্ষা শুরু হওয়ার ১০ মিনিট পূর্বে পরীক্ষা হলে উপস্থিত পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে সকল ধরনের অবৈধ কাগজপত্র নিয়ে নিতে হবে।