সাতক্ষীরায় করোনা প্রতিরোধে অভিযান অব্যাহত


430 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় করোনা প্রতিরোধে অভিযান অব্যাহত
মার্চ ২৮, ২০২০ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, এস এম মোস্তফা কামালের নির্দেশে গতরাতে সাতক্ষীরা জেলার প্রতিটি উপজেলায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামূলক অভিযান পরিচালনা করা হয়। প্রতিটি উপজেলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) এবং সহকারী কমিশনারদের নেতৃত্ব বাজার মনিটরিং করা হয়, করোনা প্রতিরোধে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ হয় এবং শতভাগ হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করাসহ নিত্যিপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দোকান ছাড়া অন্যসব দোকান বন্ধ করে দেওয়া হয়।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) শহরের বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ঘুরে শহরের সার্বিক অবস্থা বিশেষ করে জনাসমাগম না হয় এবং মানুষ যেন নির্দিষ দূরত্বে থেকে কেনাকাটা করে সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে অভিযান চালান।

সাতক্ষীরা জেলার বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট স্যারের নির্দেশে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার জন্যে কাজ করে যাচ্ছে জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেট বৃন্দ। সবাইকে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার জন্যে অনুরোধ করা হচ্ছে। আপনি ঘরে থাকলে ভালো থাকবে আপনার পরিবার, ভালো থাকবে জাতি, ভালো থাকবে দেশ।

নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য ও ঔষধের দোকান ব্যতীত অন্যান্য দোকান বন্ধ রাখা নিশ্চিত করতে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটবৃন্দ সদা গতিশীল রয়েছে। আপনারা ঘরে থাকুন, পরিবারকে সময় দিন, নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে এই যুদ্ধে আমাদের জয়ী হতেই হবে।

এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মুর্শিদা খাতুন এবং উম্মে মুসলিমার নেতৃত্বে একটি টিম খুলনা রোড হতে পাটকেলঘাটা বাজার পর্যন্ত পর্যবেক্ষণ করে। নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান গুলোতে লোক সমাগম পরিহার করে বিক্রয় করার নির্দেশনা প্রদান করা হয়। চায়ের দোকানে অপ্রয়োজনীয় জমায়েত বন্ধ করার নির্দেশ প্রদান করা হয় এবং মুদি দোকানে একত্রে জমায়েত বন্ধ করতে বলা হয়।প্রয়োজন ব্যতীত বাহিরে বের না হতেও অনুরোধ করা হয় মাইকের মাধ্যমে।

আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশনায় বুধহাটা ইউনিয়নের প্রত্যেকটি বাজার ব্লিচিং পাউডার দ্বারা স্প্রে করা হয় এবং এবং প্রতিটি ইউনিয়নে ভাইরাস প্রতিরোধে স্প্রের ধারা অব্যাহত আছে। ভিজিটিং কার্ডধারীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে চাল ইউপি চেয়ারম্যান, সদস্য ও চোকিদারদের মাধ্যমে তাদের চাল পৌছে দেওয়া হচ্ছ। প্রতিটি দোকানের সামনে সাদা গোল বিত্ত চিহ্নিত করে দেওয়া হয়েছে যাতে নিরাপদ দূরত্বে থেকে দ্রব্য ক্রয় করতে পারে।

তালা উপজেলায় নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দোকানগুলোর সামনে সাদা দাগ দেওয়া হয়েছে। নির্দিষ্ট দাগের মধ্যে দাঁড়িয়ে মানুষ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ক্রয় করছেন। প্রয়োজন ছাড়া যাতে কেউ ঘরের বাহিরে বের হয়ে ঘোরাঘুরি না করেন সে জন্য তাদের সতর্ক করাসহ সচেতনতা মাইকিং অব্যাহত আছে।