সাতক্ষীরায় কার্বাইড দিয়ে পাকানো হচ্ছে আম !


345 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় কার্বাইড দিয়ে পাকানো হচ্ছে আম !
মে ১৪, ২০১৮ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

ইব্রাহিম খলিল ::
প্রশাসনের নির্দেশ উপেক্ষা করে সাতক্ষীরায় বড় বজারে এক শ্রেণীর অসাধু ব্যাবসায়িরা অপরিপক্ক আম বাজারজাত করছে। গত ৯ মে জেলা প্রশাসকের কনফারেন্স রুমে আম ব্যাবসায়ি, আমচাষি ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠকে জেলা প্রশাসক নির্দেশ দেন ১৫ মে হিমসাগর ও ২৫ মে ন্যাংড়া আম বাজারজাত করতে হবে। কিন্তু বড় বাজর ঘুরে দেখা গেছে প্রতিদিন হাজার হাজার মন অপরিপক্ক আম বড় বাজারে বাজারজাত হচ্ছে। এবং তা কার্বাইড দিয়ে পাকিয়ে বিভিন্ন জেলায় পাঠানো হচ্ছে।

রোববার সকালে বড় বাজর ঘুরে দেখা দেখা গেছে অপরিপক্ক হিমসাগর ও গোপালভোগ আম সয়লাব। ঝুড়ির উপর কিছু পরিপক্ক আম দিয়ে তলায় সব অপরিপক্ক আম। প্রশাসনের নজর দারী না থাকার কারনে এমনটি হচ্ছে বলে মনে করেন ভুক্তভুগিরা।

এদিকে সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় রাসায়নিক হরমোন দিয়ে পাকানো ১শ মণ আম বিনষ্ট করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শনিবার (১২ মে) দুপুরে তালা থানা চত্বরে এসব আম বিনষ্ট করা করা হয়। এর আগে শুক্রবার রাতে উপজেলার ইসলামকাটি ইউনিয়নের নাংলা গ্রাম থেকে এসব আম জব্দ করা হয়।

তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফরিদ হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার দুপুরে নাংলা গ্রাম থেকে রাসায়নিক হরমোন দিয়ে পাঁকানো বিভিন্ন প্রজাতির আম জব্দ করা হয়। আমগুলো ট্রাক ভর্তি করে রাজধানীর ওয়াইজঘাটের ফল বাজারে পাঠানো হচ্ছিল। পরে ট্রাক থেকে উদ্ধার হওয়া ১৬৩টি ক্যারেটে ভর্তি প্রায় ১শ মণ খাবার অনুপযোগী আম কেরোসিন দিয়ে বিনষ্ট করা হয়।

আম ব্যাবসায়ি আবুল কালাম বাবলা জানান, তিনি গত দুই বছর যাবত হিমসগর ও ন্যাংড়া আম পরিচর্যা করে বিদেশে পাঠাচ্ছেন। সাতক্ষীরার আমের সুখ্যাতি সারা দেশে রয়েছে। এই সুখ্যাতি নষ্ট করার জন্য এক শ্রেণীর অসাধু ব্যাবসায়িরা উঠে পড়ে লেগেছে। সাতক্ষীরার ব্রান্ড আমের সুখ্যাতি যাতে নষ্ট না হয় তিনি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সাতক্ষীরা বড় বাজার মনিটরিং কর্মকর্তা আবু সালেহ জানান, অপরিপক্ক আম বাজারজাত মোটেও কাম্য নয়। জেলা প্রশাসকের নির্দেশ মানতে হবে । তিনি বলেন আনঅফিসায়ালি একটি কথা হয়েছে পরিপক্ক আম ব্যাবসায়িরা ভাঙ্গতে পারবে। তবে ১৫ তারিখে আম ভাঙ্গার নির্দেশ রয়েছে।

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন জানান, সাতক্ষীরার আম সারা দেশে সুখ্যাতি রয়েছে। সুনাম ক্ষুণœ করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। ভোক্তার অধিকার ক্ষুণœ করে আম পাকাতে কেউ কার্বাইডের আশ্রয় নিলে কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করা হবে। মোবাইল কোর্ট বসিয়ে তাৎক্ষণিক সাজা কার্যকর করা হবে। সাথে থাকবে জরিমানার ব্যবস্থা। তিনি আরও বলেন ইতিমধ্যে আমরা ফরমালিন মেশানো কয়েক ট্রাক আম জব্দ করে বিনষ্ট করেছি। সাতক্ষীরার ব্রান্ড আমের সুখ্যাতি নষ্ট কারিদের কঠোর শাস্তি দেওয়া হবে বলে তিনি জানান। জেলায় যেখানেই আমে কার্বাইড ও ফরমালিন মেশানোর তথ্য তিনি প্রশাসনের কাছে দেওয়ার আহবান জানান। এবং সাথে সাথে এর ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য এবার সাতক্ষীররারজেলার সাতটি উপজেলায় চলতি বছর চার হাজার হেক্টর জমিতে আম চাষ হয়েছে। এরমধ্যে সদর উপজেলায় ১১৯৫ হেক্টর জমিতে, কলারোয়া উপজেলায় ৬০২ হেক্টর, তালা উপজেলায় ৭০৫ হেক্টর, দেবহাটা উপজেলায় ৩৬৮ হেক্টর কালিগঞ্জ উপজেলায় ৮০৫ হেক্টর, আশাশুনি উপজেলায় ১২৫ হেক্টর ও শ্যামনগর উপজেলায় ১৫০ হেক্টর জমিতে আম চাষ হয়েছে। এরমধ্যে সাতক্ষীরা সদরে আমের বাগান রয়েছে ১৫৩০টি, কলারোয়ায় ১৩১০টি, তালায় ১৪৫০টি, দেবহাটায় ৪৭৫টি, কালিগঞ্জে ১৪২টি, আশাশুনিতে ১৯০টি ও শ্যামনগর উপজেলায় ১৫০টি আমের বাগান রয়েছে।

##