সাতক্ষীরায় কৃষকদের সাথে জেলা প্রশাসকের মতবিনিময় সভা


380 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় কৃষকদের সাথে জেলা প্রশাসকের মতবিনিময় সভা
ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৯ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

সুমন মূখার্জী ::

তৃণমূল পর্যায়ের কৃষকদের সাথে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বিকেলে শহরের তালতলা সহকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন, সাতক্ষীরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ অরবিন্দ বিশ্বাস। প্রধান অতিথি ছিলেন, সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল।
সদর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেলা প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা কৃষিবিদ নূরুল ইসলাম, সদর উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ আমজাদ হোসেন, বিনার ভারপ্রাপ্ত বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ আল আরাফাত তপু, সদর উপজেলা কৃষি সম্প্রাসরণ অফিসার কৃষিবিদ প্লাবনী সরকার, জেলা মার্কেটিং অফিসার মোঃ আব্দুল্লাহ, সহকারি কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার মোঃ নুরুল হুদা, উপ-সহকারি কৃষি অফিসার রঘুজিৎ গুহ, অমল কুমার ব্যনার্জী, কিরন্ময় সরকার, নীল কণ্ঠ সরকার, সুমন সাহা প্রমুখ।
সভায় পুরাতন সাতক্ষীরার আম চাষী আব্দুল হাই সিদ্দিকী বলেন, সাতক্ষীরায় প্রচুর আম উৎপাদন হয়। সংরক্ষণের অভাবে ভালো বাজার মূল্য পাওয়া যায় না। আম রপ্তানি হয় সীমিত। সাতক্ষীরায় ফল সংরক্ষণের জন্য একটি হিমাগার নির্মাণের আহ্বান জানান। জগন্নাথপুরের সবজিচাষী নজরুল ইসলাম বলেন, সাতক্ষীরায় ব্যাপক সবজি উৎপাদন হয়। মৌসুমে সবজির দাম কম থাকায় কৃষকরা লাভবান হতে পারে না। সবজি সংরক্ষণের জন্য এটি হিমাগার বিশেষ প্রয়োজন।
প্রধান অতিথি সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক বলেন, সাতক্ষীরায় সার সংরক্ষণের জন্য একটি বাপার সার গুদাম নির্মাণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে। সাতক্ষীরার ডিলারদের খুলনা থেকে সার আমদানি করতে হবে না। বিধায় সঠিক মূল্যে সাতক্ষীরার কৃষকরা সার পাবে।
ফল ও সবজি সংরক্ষণের বিষয়ে বিবেচনা করে হিমাগার নির্মাণের বিষয়টি গুরুত্বসহকারে দেখা হচ্ছে। এছাড়া কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সাতক্ষীরা জেলা, উপজেলার সকল কর্মকর্তা মাঠ পর্যায়ের উপ-সহকারী অফিসারবৃন্দ অক্লান্ত পরিশ্রম করে নতুন জাত ও বিভিন্ন প্রযুক্তি কৃষকদের মাঝে হস্তান্তরের মাধ্যমে কৃষি উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রেখে চলেছেন। আমি প্রতি মাসে কৃষকদের সাথে এই ধরনের মতবিনিময়ের মাধ্যমে কৃষকদের ভিতরের সমস্যাগুলো জানতে আগ্রহী। উক্ত অনুষ্ঠানে ২৫০ কৃষক-কৃষানী উপস্থিত ছিলেন।