সাতক্ষীরায় ক্রয়কৃত জমি দখল পাওয়ার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন


349 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় ক্রয়কৃত জমি দখল পাওয়ার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন
জুলাই ৩০, ২০১৬ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার  :
ক্রয়কৃত জমি লিখে দেওয়ার নাম করে টাকা নিয়ে এখন জমি লিখে না দেওয়ার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার দুপুরে জনাকীর্ণ এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বুলারাটি গ্রামের জামাল গাজীর ছেলে লিয়াকত আলী আহব্বান আলী ।

এসময় লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, বিগত ২০০১ সালে একই গ্রামের মৃত রজব আলীর ছেলে আব্দুস সবুর এস এ খতিয়ানের ১০২৪৭ ও ১০১০০ সাবেক, এস এ খতিয়ান ১১৭০,ডি.পি খতিয়ান ১৯১২ দাগে ৩ কাঠা জমি লিখে দেওয়ার নাম করে আমার কাছ থেকে ৩৭ হাজার টাকা গ্রহণ করেন। সে মোতাবেক ওই জমিতে আমি বর্তমানে বড় বড় গাছ লাগিয়ে সেখানে ভোগ-দখলে আছি। কিন্তু হঠাৎ করে আব্দুস সবুর ওই জমি আমাকে লিখে না দিয়ে তালবাহানা করতে থাকেন। এক পর্যায়ে স্থানীয় ব্যক্তিবর্গের সমন্বয়ে একটি শালিসী বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে আব্দুস সবুর পরাজিত হয়। পরে আলিপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ডা. মহিয়ুর রহমান ময়ুর এর কাছে বিচার দাবি করে আব্দুস সবুর।

এসময় তিনি আমার কাছ থেকে ১৭ হাজার টাকা নিয়েছে বলে স্বীকার করেন। এছাড়া এলাকাবাসীর সামনে ওই জমি আমার নামে লিখে দেওয়ার কথা বলেন তিনি। এরপর গত ২৮ জুলাই‘১৬ তারিখে তিনি আমার বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে একটি সংবাদ সম্মেলন করেছেন। সেখানে তিনি যে বক্তব্য উপস্থাপন করেছেন তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। ওই জমির সাথে চাচা জালাল এর কোন সম্পর্ক নেই। আমার টাকা আত্মসাত ও জমি লিখে না দেওয়ার জন্য তিনি এ ধরনের প্রতারনার আশ্রয় নিয়েছেন। জমি লিখে দেওয়ার নাম করে আমার মত অসহায় ব্যক্তির কাছ থেকে ৩৭ হাজার টাকা নিয়েছিলেন ওই সবুর। কিন্তু এখন তিনি জমি লিখে না দেওয়ার জন্য পায়তারা চালচ্ছেন।

এব্যাপারে যাতে আমার দখলীয় জমি আমি ফিরে পেতে পারি এবং প্রতারক আব্দুস সবুরের শাস্তির দাবীতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।