সাতক্ষীরায় খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি এস.এম মনির-উজ-জামানের বিদায় সংবর্ধনা


1843 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি এস.এম মনির-উজ-জামানের বিদায় সংবর্ধনা
মার্চ ৩১, ২০১৭ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

সাতক্ষীরা জেলা পুলিশের আয়োজনে শুক্রবার বেলা ০২ ঘটিকায় পুলিশ লাইন্সে খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি এস.এম মনির-উজ-জামানরে বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়। পুলিশ সুপার, সাতক্ষীরা  মোঃ আলতাফ হোসেন, পিপিএম-এর সভাপতিত্বে উক্ত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা রেঞ্জের বিদায়ী রেঞ্জ ডিআইজি  এস.এম মনির-উজ-জামান, বিপিএম, পিপিএম।
অন্যান্যদের মধ্যে সাতক্ষীরা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার  কে এম আরিফুল হক, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, সাতক্ষীরা সার্কেল জনাব মেরিনা আক্তার, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার, তালা সার্কেল জনাব মোঃ আতিকুল হক, সহকারী পুলিশ সুপার(সদর) মোঃ হুমায়ুন কবির, সহকারী পুলিশ সুপার, ডিএসবি মোঃ ইয়াছিন আলী শেখসহ জেলার সকল থানার অফিসার ইনচার্জগণ ও জেলা পুলিশের সকল স্তরের পুলিশ সদস্য উপস্থিত ছিলেন। বিদায়ী অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, এক প্রতিকুল পরিস্থিতিতে তিনি খুলনা রেঞ্জের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। তৎসময় একটি কুচক্রী মহল সারাদেশে অরাজকতা সৃষ্টি করেছিল। সেসময় তিনি ও তার সহকর্মীরা নিজেদের জীবন বাজী রেখে অত্যন্ত সাহসিকতা ও দৃঢ়তার সাথে খুলনা রেঞ্জের সকল জেলায় আইন শৃংখলা পরিস্থিতি উন্নয়নকল্পে দিন-রাত নিরলস পরিশ্রম করেছেন। ২০১৩ ও তার পরবর্তী সময়ের স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধকালীন পাক-হানাদার বাহিনীর নৃশংসতাকেও জামায়াত শিবিরের নৃসংসতা হার মানিয়েছিল। তিনি জামায়াত শিবিরের নৃশংসতার শিকার খুলনা রেঞ্জের ০৩ শহীদ পুলিশ সদস্যের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা ও তাদের পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা জানান। রেঞ্জে কর্মরত সকল স্তরের পুলিশ সদস্যদের জন্য তার দুয়ার খোলা ছিল উল্লেখ করে বিদায়ী অতিথি বলেন, পুলিশের যেকোন সমস্যা তিনি আন্তরিকতার সাথে সমাধানের চেষ্টা করেছেন। তিনি আরো বলেন, সাতক্ষীরা তার আবেগের জায়গা। সাতক্ষীরা জেলায় পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে এখানকার শান্তিপ্রিয় জনগণের ভালবাসায় তিনি অভিভুত হয়েছেন। সাতক্ষীরার জনগণের সাথে তার আত্মার সম্পর্ক সৃষ্টি হয়েছে। তিনি আরো বলেন, দায়িত্ব পালনকালে তিনি কখনও কোন ব্যক্তি, দল বা গোষ্ঠীর প্রতি রাগ, অনুরাগ কিংবা বিরাগ ভাজন হয়ে কোন সিদ্ধান্ত বা পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি বরং সর্বোচ্চ মেধা, আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন। সবশেষে তিনি নিজের ও তার পরিবারের সদস্যদের জন্য সকলের দোয়া প্রার্থণা করেন। সভাপতির বক্তব্যে পুলিশ সুপার বলেন, যেকোন প্রয়োজনের মুহুর্তে তিনি রেঞ্জ ডিআইজি মহোদয়কে পাশে পেয়েছেন এবং শত প্রতিকুলতার মুখেও সামনে থেকে প্রয়োজনীয় দিক-নির্দেশনা প্রদান করে সমস্যা সমাধান করায় ডিআইজি মহোদয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বিদায়ী অতিথির উত্তোরত্তর সাফল্য, সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন।