সাতক্ষীরায় জমি লিখে না দেয়ায় সাবেক এমপি গোলাম রেজা এক বৃদ্ধকে মিথ্যে মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন


534 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় জমি লিখে না দেয়ায়  সাবেক এমপি গোলাম রেজা এক বৃদ্ধকে মিথ্যে মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন
জুলাই ৩০, ২০১৫ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সাতক্ষীরায় জমি লিখে না দেয়ায়  জাতীয় পার্টি থেকে বহিস্কৃত সাবেক এমপি এইচ এম গোলাম রেজা কর্তৃক অসুস্থ্য এক বৃদ্ধকে মিথ্যে মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।  বৃহস্পতিবার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন জেলার শ্যামনগর উপজলা সদরের গোপালপুর গ্রামের অসুস্থ্য বৃদ্ধ মোঃ আব্দুর রশিদ গাইনের ছেলে মোঃ মাহমুদুর রহমান গাইন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মাহমুদুর রহমান বলেন, গোপালপুর পিকনিক কর্ণারের গেটের সামনে তার মা রেহানা বেগমের  নামে কেনা ১৫ কাঠা জমির উপর একটি দোকান ঘর বেধে তার বৃদ্ধ পিতা ব্যবসা করছেন।  সাত বছর আগে এইচ,এম গোলাম রেজা এমপি থাকা কালিন ওই জমি কিনে নিতে তাদের কাছে প্রস্তাব দেয়। প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় তাদের প্রতিবেশি ও গোলাম রেজার ঘনিষ্ট নারী পাচার মামলার আসামী আশুরা বেগমকে দিয়ে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র শুরু করেন। এক পর্যায়ে ২০১১ সালে গোলাম রেজার প্রত্যক্ষ মদদে আশুরার চাচীকে দিয়ে তাকে ও তার বাবাকে একটি ধর্ষণ চেষ্টা মামলায় আসামী করা হয়। শ্যামনগর থানার এসআই হযরত আলী তন্ত— করে মামলাটি মিথ্যা হিসেবে ২০১২ সালে সকল আসামীদের অব্যহতি দিয়ে বাদীর বিরুদ্ধে ১৭ ধারায় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন। এরপরও গোলাম রেজা ওই জমি কিনে নেওয়ার জন্য মোবাইল ফোনে ও লোক দিয়ে তাদেরকে হুমকি ধামকি অব্যহত রেখেছেন। রেজার ইন্ধনে এক পাচার মামলার ভিকটিমকে লুকিয়ে রাখার অভিযোগে সম্প্রতি পুলিশ তার বাবাকে ৫৪ ধারায় গ্রেফতার করে। গত পয়লা জুলাই তার বাবা আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পায়। অভিযোগ সঠিক না হওয়ায় ৭ জুলাই পুলিশ আদালতে চুড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করে।
তিনি বলেন, সম্প্রতি জয়নগর গ্রামে দু’টি শিশুকে গাছের সাথেবেঁধে ছবি তুলে সংবাদ মাধ্যমে প্রচার ও সরকারের ভাব মুর্তি নষ্ট করার অভিযোগে ২৬ জুলাই শ্যামনগর থানায় একটি মামলা করা হয়। মামলার বাদী  গোলাম রেজার ঘনিষ্ট যুব সংহতির নেতা জয়নগর গ্রামের আনিসুর রহমান। কোন কারন ছাড়াই তার অসুস্থ্য বৃদ্ধ বাবাকে ওই মামলায় ৩ নং আসামী করা হয়েছে। তাদের ধারনা রেজা বাদীকে দিয়ে তার বাবাকে এই মামলায় আসামী করিয়েছে।
তিনি অভিযোগ করে বলেন, জমি কিনতে না পেরে  গোলাম রেজা পুলিশকে ব্যবহার করে তার  নিজে ও বাবাসহ পরিবারের সদস্যদেরকে  একের পর এক মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করাচ্ছেন। মিথ্যে মামলার আসামী হয়ে তার অসুস্থ্য বাবা এখন পালিয় বেড়াচ্ছেন।  তিনি মিথ্যে মামলার দায় হতে তার বাবাকে অব্যহতি প্রদান ও এ ধরনের ষড়যন্ত্র  এবং হয়রানির হাত থেকে রক্ষা পেতে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইজিপি, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তা ও মানবাধিকার সংগঠণের নেতৃবৃন্দদের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।