সাতক্ষীরায় জলাবদ্ধতা নিরসনে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি পেশ


231 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় জলাবদ্ধতা নিরসনে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি পেশ
আগস্ট ৫, ২০২১ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

আসাদুজ্জামান ::

সাতক্ষীরা শহর ও শহরতলীর ভয়াবহ জলাবদ্ধতা দূরীকরণে ৯ দফা দাবীতে স্মারকলিপি পেশ করা হয়েছে। বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সাতক্ষীরা জেলা শাখা বৃহষ্পতিবার দুপুর ১ টায় জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হুমায়ুন কবীর বরাবর এ স্মারকলিপি পেশ করেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সাতক্ষীরা শাখার সভাপতি মহিবুল্লাহ মোড়ল, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. ফাহিমুল হক কিসলু, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য মঈনুল হাসান, প্রকৌশলী আবেদুর রহমান, স্বপন কুমার শীল ও জেলা কমিটির সদস্য নির্মল কুমার সরকার।
স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়েছে, বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সাতক্ষীরা জেলা শহরসহ নিম্নাঞ্চলে ভয়াবহ জলাবদ্ধতার কারণে জনজীবনে মানবিক বিপর্যয় নেমে এসেছে। অতিবৃষ্টি ও বৃষ্টির পানি নিষ্কাশিত হতে না পেরে বসতবাড়ি, রাস্তাঘাট পানিতে ডুবে গেছে। ভেঙে পড়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা, সুপেয় পানি ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা। খাদ্যের অভাবে গৃহপালিত পশু সস্তায় বিক্রি করতে হচ্ছে। জলাবদ্ধতা দীর্ঘমেয়াদী রুপ নেওয়ায় পানিবাহিত রোগের প্রাদুর্ভাব ঘটেছে। খাদ্য ও কর্মসংস্থানের অভাবে মানুষকে এলাকা ছেড়ে অন্যত্র যেতে হচ্ছে। জনজীবনের এই বিপর্যয় থেকে মানুষকে বাঁচাতে তারা ৯ দফা দাবী তুলে ধরেন। দাবী গুলোর মধে রয়েছে, নদী-খাল রক্ষায় টিআরএম পদ্ধতির মাধ্যমে জোয়ার-ভাটা, নদীর নাব্যতা রক্ষা এবং পলির বিকল্প অবক্ষেপণের কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ। বেতনা-মরিচ্চাপ অববাহিকায় নদীর জোয়ার বাহিত পলি দ্বারা নদীর মৃত্যু ও জনদুর্ভোগ প্রশমণের জন্য সরকার কর্তৃক গৃহীত সাতক্ষীরা জেলার পোল্ডার নং-১, ২, ৬-৮, ৬-৮ সম্প্রসারণ বেতনা অববাহিকায় ‘‘নিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়ন প্রকল্প পর্যালোচনা’’ স্থানীয় জনগণের অভিজ্ঞতা এবং উপকূলীয় অঞ্চলে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণসহ জনজীবনের নিরাপত্তা ও পরিবেশ বিপর্যয়ের হাত থেকে সাতক্ষীরাকে রক্ষা করার জন্য প্রাণসায়ের খালে প্রসস্থ ড্রেনেজ সংযোগ দেয়া। বেতনা খনন করে শাল্যে ও বেড়াডাঙি স্লুইজ গেটের কার্যকারিতা বাড়ানো। প্রাণসায়ের খালের সাথে বেতনা ও মরিচ্চাপ নদীর পুনঃসংযোগ প্রদান করা। খেজুরডাঙ্গী স্লুইজগেইট এবং এল্ল¬ারচর স্লুইজগেইট অপসারণ করা অথবা বিকল্প চ্যানেল করে পুনঃসংযোগ দেয়াসহ ৯ দফা দাবী তারা তুলে ধরেন। সর্বোপরি তারা পানি নিষ্কাশনের জন্য অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রাজস্বকে প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করার প্রস্তাব দেন ওই স্মারক লিপিতে।