সাতক্ষীরায় জোরপূর্বক জমি দখল চেষ্টা ও পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন


126 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় জোরপূর্বক জমি দখল চেষ্টা ও পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন
মে ২১, ২০২২ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

সাতক্ষীরা সদরের ব্রক্ষরাজপুরে এক জামায়ত নেতা কর্তৃক সংখ্যলঘুর ক্রয়কৃত জমি জোরপূর্বক দখল চেষ্টা ও পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের আব্দুল মোতালেব মিলনায়তনে এক জনার্কিন সংবাদ সম্মেলেন লিখিত বক্তভ্য পাঠ করেন ব্রক্ষরাজপুর গ্রামের মৃত সাধন ঘোষের পুত্র বিকাশ ঘোষ। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন ২০২০ সালের ২মার্চ ব্রক্ষরাজপুর এলাকার পাগল গাজীর ২ কন্যা আমেনা খাতুন ও জামেলা খাতুনের কাছ থেকে ৩৬ লক্ষ টাকার বিনিময়ে ব্রক্ষ্মরাজপুর জে এল নং ১০৩ খতিয়ান নং এস, এ ৫৪৫, ১৮৭৪ নং খতিয়ানে বর্তমান জরিপে আর, এস-৮৪৯ নং খতিয়ানে দাগ নং এস, এ ৬৫৫৫, ৬৫৬১ দাগে ৬১ শতক জায়গা ক্রয় করি। ক্রয়কৃত জমি মোছাঃ আমেনা খাতুন ও মোছাঃ জামেলা খাতুনের পৈত্রিক ও রেকর্ডীয় সম্পত্তি। তারা আমাদের দুই ভাই, আমি বিকাশ ঘোষ ও সত্যপদ ঘোষ এর নামে ওই জমির কবলা রেজিস্ট্রি করে দেন এবং আমাদের দখল বুঝিয়ে দেয়। জমি ক্রয়ের পর থেকে আমেনা খাতুন ও জামেলা খাতুনের বিমাতা ভাই ব্রক্ষ্মরাজপুর ওমরাপাড়ার সোলেমান গাজী আমাদের ক্রয়কৃত জমি দখল করার চেষ্টা করে আসছে। সে এলাকায় প্রচার করে, তার দুই বোন জামেলা খাতুন ও আমেনা খাতুনের কোন জমি সেখানে নেই। এই জমি ক্রয় করার আগে আমি সোলেমান গাজীর কাছে জমির ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আপনি জমি নিতে পারেন আমার কোন সমস্যা নেই। কিন্তু, জমি ক্রয়ের পাঁচ মাস পর সোলেমান গাজী সাতক্ষীরা আদালতে হয়রানিমূলক মামলা দায়ের করেছে। সে রাতের আধারে পাশ্ববর্তী ইউনিয়নের এক জনপ্রতিনিধির লালিত সশস্ত্র সন্ত্রসী বাহিনী দিয়ে আমাদের ক্রয়কৃত জমির সীমানায় দেয়া বেড়া ভেঙে জমি দখলের চেষ্টা করে। সেই সন্ত্রাসী বাহিনী আমাদের প্রকাশ্যে হুমকি দিয়ে বলতে থাকে, জমি ছেড়ে দে নইলে তোদের দুই ভাইয়ের লাশ ফেলে দেয়া হবে। আমরা এসব বিষয়ে বহুবার থানা পুলিশ ও ডিবি অফিসে মীমাংশার জন্য বসলেও কোন লাভ হয়নি। এছাড়া এবিষয়ে ধুলিহার ইউপি চেয়ারম্যান মিজান চৌধুরী সালিশ করেছিল কিন্তু সোলেমান সেই সালিশ মানেনি। উল্টো আমাদের দুই ভাই ও পরিবারকে বিপদের মুখে পড়তে হয়েছে বারবার। এমনকি সোলেমান গাজী জেলা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী দুই নেতার নাম উল্লেখ করে আমাদের হুমকি দিয়ে বলেন, তারা আমার লোক, থানা পুলিশ যেখানেই যাশ কোন লাভ হবেনা। জমি ছেড়ে ভারতে পালাতে হবে তোদের। জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের দুই নেতার মদদে জামাত পরিবারে সোলেমান গাজী আমাদের জমি দখল ও আমার পরিবারের সদস্যদের প্রাণ নাশের হুমকি ধামকি দিচ্ছে। আমরা এখন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।
তিনি আরো বলেন আমরা এত টাকা দিয়ে জমি কিনে সেই জমি ভোগ করতে পারছি না। এখন পরিবার নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি আমরা। আমাদের প্রতিপক্ষ সোলেমান গাজী ও তার ছেলে আতিয়ার রহমান ২০১৩ সালে দেশবিরোধী নাশকতায় জড়িত ছিল। তাদের নামে একাধিক গাছ কাটা ও নাশকতার মামলা রয়েছে। আমরা বর্তমানে সোলেমান গাজী ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর দাপটে দিশেহারা হয়ে পড়েছি। এব্যাপারে তিনি সোলেমান গাজীর কবল থেকে ক্রয়কৃত সম্পত্তি রক্ষা এবং পরিবারের সদস্যদের জীবনের নিরাপত্তার দাবিতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

#