সাতক্ষীরায় নিজের সম্ভ্রম রক্ষা ও স্বামীর সাথে শান্তিতে ঘর সংসার করার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন


590 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় নিজের সম্ভ্রম রক্ষা ও স্বামীর সাথে শান্তিতে ঘর সংসার করার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন
জুন ৩, ২০১৮ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

 

স্টাফ রিপোর্টার ::
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় দুর্বলতার সূযোগ নিয়ে কৌশলে এক বিধবা মহিলাকে বিয়ে করে চাহিদামত টাকা না পাওয়ায় দ্বিতীয় স্বামী কর্তৃক তালাক দেওয়ার জন্য মারপিট ও হুমকি ধামকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। রবিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার তৈলকুপি গ্রামের মৃত তকরম সরদারের মেয়ে মোছাঃ জায়েদা খাতুন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমার স্বামী আফসার আলী জীবিত থাকায় অবস্থায় পাশ্ববর্তী পাঁচপোতা গ্রামের মোঃ আব্দুর রহিমের ছেলে কুদ্দুস আলী প্রায়ই আমাকে প্রেমের প্রস্তাব দিতো। কিন্তু তখন আমি রাজি হয়নি। গত ৮/৯ আগে দু’টি সন্তান রেখে প্রথম স্বামী আফসার আলী মারা যান। স্বামীর মৃত্যুর পর আমি মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়ি। এসময় কুদ্দুস দুই সন্তনসহ আমার সকল দায়-দায়িত্ব নেওয়ার প্রতিশ্রুতিতে বিয়ের প্রস্তাব দিতে থাকে। আমি তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সে আমার বাড়িতে এসে আত্মহত্যার হুমকি দেয়। একপর্যায়ে ২সন্তান এবং নিজের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে কুদ্দুসের প্রস্তাবে রাজি হই এবং গত ৫ মে ইসলামী শরিয়ত মোতাবেক ৫লক্ষ টাকা দেনমোহর ধায্যে রেজিঃ বিয়ে করি। বিয়ের পর সাতক্ষীরা জজ কোর্টের এড. শম্ভু নাথের মাধ্যমে এফিডেভিট করা হয়।
তিনি অভিযোগ করে বলেন, বিয়ের পর থেকে কুদ্দুস আমার কাছে মোটা অংকের টাকা দাবি করতে থাকলে আমি গরু বিক্রি করে ৫০ হাজার টাকা তার হাতে দেই। পরে আরো টাকা দাবি করলে আমি দিতে অস্বীকৃতি জানালে কয়েকদিন পর কুদ্দুস আমার সাথে আর সংসার করবে না বলে জানিয়ে দেয় এবং আমি যেন তাকে তালাক দেই সে জন্য আমাকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি প্রদর্শন করতে থাকে। এঘটনায় আমি আরো অসহায় হয়ে পড়ি। আমাকে নিঃস্ব করে এখন আবার তালাক দেওয়ার ষড়যন্ত্র শুরু করেছে। এ নিয়ে বিভিন্ন দপ্তরে ধর্না দিতে থাকি।
তিনি আরো বলেন, আমার এ অসহায়ত্বের সুযোগে একই এলাকার মৃত. শাহাদৎ মোড়লের ছেলে আব্দুর রহমান, মৃত. গোলাম মোস্তফার ছেলে কুদ্দুস (নেতা কুদ্দুস) পৃথক সময়ে গত ১৫/১৬ দিন পূর্বে গভীর রাতে আমার বাড়িতে এসে নতুন স্বামীর সাথে মিলিয়ে দেয়ার শর্তে আমাকে কু-প্রস্তাব দেয়। তাদের কথায় রাজি না হওয়ায় তারা আমার ও সন্তানদের খুন,জখমের হুমকি প্রদর্শন করে এবং পরদিন আমার ছেলেকে মারপিট করে। এছাড়া আমার নতুন স্বামী কুদ্দুসের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা নিয়ে একই এলাকার জিয়া, জোহর আলী, ইসমাইল, কুরবান আলী, কওছার আলী ও মোকছেদ তালাক দেওয়ার জন্য আমাকে হুমকি দিচ্ছে। আমি এখন নিরুপায় হয়ে পড়েছি
তিনি উলে¬খিত কুচক্রীদের হাত থেকে নিজের সম্ভ্রম রক্ষা করতে এবং নতুন স্বামী কুদ্দুসের সাথে শান্তিতে ঘর সংসার করার বিহীত ব্যবস্থা গ্রহণে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশি¬ষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।