সাতক্ষীরায় পাটজাত পণ্যের বাজার সম্প্রসারণে কর্মশালা


320 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় পাটজাত পণ্যের বাজার সম্প্রসারণে কর্মশালা
জুলাই ২০, ২০১৬ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

আসাদুজ্জামান :
সাতক্ষীরায় পাট উৎপাদন ও পাটজাত পণ্যের বাজার সম্প্রসারণ বিষয়ক অভিজ্ঞতা বিনিময় কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার বেলা ১১টায় সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদের ডিজিটাল কর্নারে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সহায়তায় কেয়ার বাংলাদেশ এ কর্মশালার আয়োজন করে।

কর্মশালায় সাতক্ষীরা জেলায় পাট চাষ ও পাটজাত পণ্যের সমস্যা সম্ভাবনা তুলে ধরে বলা হয়, জলাবদ্ধতা, মানসম্মত বীজ সংকট, পাট জাগ দেওয়া, আশ ছাড়ানোর যথাযথ জ্ঞানের অভাব, উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য না পাওয়ার কারণে ভাল মানের পাটজাত পণ্য উৎপাদন ব্যাহত হয়। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে জেলার দুইটি উপজেলার ৮৫ গ্রামের কৃষকদের ১৬০টি গ্রুপে ভাগ করে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। একই সাথে পাটজাত পণ্য উৎপাদনে নিয়োজিতদেরও প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এর ফলে সম্পূর্ণ জৈব উপায়ে পাট উৎপাদন এবং উন্নতমানের পাটজাত দ্রব্য উৎপাদন ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের বিভিন্ন দেশে রপ্তানি সম্ভব হচ্ছে।

কর্মশালায় কেয়ার বাংলাদেশের টেকনিক্যাল ম্যানেজার মো. শহীদুল্লাহর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা প্রশাসক আবুল কাশেম মো. মহিউদ্দিন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শাহ আব্দুল সাদী, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কোহিনুর ইসলাম, জেলা কৃষি প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা জিএমএ গফুর ও প্রজেক্ট অফিসার শাহ মো. রেজাউল করিম।

মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এম কামরুজ্জামান, যশোর বিজেআরআই’র প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. রনজিৎ কুমার, কলারোয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মহাসীন আলী, তালা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সামসুল আলম, খন্দকার মোশারফ হোসেন, পাট বীজের ডিলার বিশ্বজিৎ সাধু, পাট চাষী মোবারক আলী, পাটজাত পণ্য উৎপাদনকারী কনিকা দাস প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, পাটের সোনালী দিন ফেরাতে বিদ্যমান সমস্যাসমূহ দূর করতে হবে। ভাল মানের বীজের সরবরাহ বাড়লে ভাল মানের পাট উৎপাদন সম্ভব। একই সাথে পাটজাত পণ্যের বাজার সম্প্রসারণে সরকারকে আরও আন্তরিক হতে হবে।
এ সময় বক্তারা পলেথিনের ব্যবহার শূন্যে নামিয়ে আনতে প্রশাসনকে আরও কঠোর হওয়ার আহবান জানান। ##