সাতক্ষীরায় পৈত্রিক সম্পত্তি জবর দখলের হাত থেকে রক্ষার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন


343 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় পৈত্রিক সম্পত্তি জবর দখলের হাত থেকে রক্ষার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন
সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :
সাতক্ষীরায় পৈত্রিক সম্পত্তি জবর দখল করতে না পেরে প্রতিপক্ষ চাচাত ভাইরা এক  যুবককে প্রাণনাশের হুমকিসহ নানা ভাবে হয়রানি ও ক্ষতিগ্রস্থ করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এবিষয় পুলিশকে বারবার অবহিত করার পরও অজ্ঞাত কারনে তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে না। মঙ্গলবার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বড়খামার গ্রামের মৃত কফিল উদ্দিন ওরফে আফিল উদ্দিনের ছেলে মোঃ আদম আলী।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আদম আলী বলেন, ব্রক্ষ্মরাজপুর মৌজার সিএ ৮৩৮ ও এস,এ ৮১৯ নং খতিয়ানের  পাঁচটি দাগে মোট ১ একর ৮৩ শতক জমির মধ্যে ৭০ শতক জমি পেত্রিক সূত্রে তিনি নিজে মালিক। ২০০৫ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা মারা যাওয়ার পর চাচা রিয়াজউদ্দিনের নজর পড়ে তার ওই জমির উপর। তিনি বিভিন্ন ভাবে তার  পৈত্রিক ৭০ শতক জমি আত্মসাতের চেষ্টা চালাতে থাকেন। এক পর্যায় ২০০৮ সালে সাতক্ষীরা সদর সহকারি জজ আদালতে তিনি ১০৮/০৮ নং দেওয়ানী মামলা দায়ের করেন। ২০১০ সালে চাচা মারা যাওয়ার পর তার ছেলে কামরুল ইসলাম ও কবিরুল ইসলাম তাদের বাবার পক্ষ নিয়ে মামলা পরিচালনা করে একই ভাবে তাকে হয়রানি করা অব্যহত রাখে। কিন্তু মিথ্যে হওয়ায় ২০১৫ সালের ১৪ জানুয়ারী মৃত চাচার দায়ের করা মামলাটি  আদালত খারিজ করে দেয়। মামলা খারিজের বিষয়টি জানতে পেরে কামরুল ও কবিরুল  একটি জাল রায় ম্যানেজ করে গত ২৫ ফেব্রুয়ারী ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের নিয়ে তার জমি  দখলের চেষ্টা করে।

তারা ওই জমিতে লাগানো ছোট বড় শতাধিক গাছ কেটে নিয়ে যায়। বাঁধা দিতে গেলে সন্ত্রাসীরা তাকে ও তার মা ফরিদা খাতুনকে বেদম মারপিট করে। এঘটনায়  থানায় অভিযোগ দেয়ার পর ২ মার্চ একটি  শালিশী বৈঠকে তার চাচাত ভাই কামরুল ও কবিরুল  ভূল স্বীকার করে পুনরায় ওই জমিতে আর যাবে না বলে ওয়াদা করে। কিন্তু পরে জমিতে পড়ে থাকা ২ টি গাছ উঠিয়ে নিতে গেলে তারা তাকেসহ তার পরিবারের সদস্যদেরকে মারপিট করে রক্তাক্ত জখম করে। এঘটনায় ৫ মার্চ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিলেও পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়নি।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, তার পৈত্রিক  ৭০ শতক সম্পত্তি জবর দখল করে নেওয়ার জন্য চাচাত ভাই কামরুল ও কবিরুল এখনও ষড়যন্ত্র অব্যহত রেখেছে। তারা তাকে মিথ্যে মামলায় জড়িয়ে দেয়ার পাশাপাশি প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। তাদের ভয়ে বার্তমানে তিনি বিধবা মা’কে নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

তিনি চাচাত ভাইদের অত্যাচার ও নির্যাতন থেকে পরিত্রান পেয়ে যাতে শান্তিপূর্ন পরিবেশে পৈত্রিক জমিতে বসবাস করতে পারেন তার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।