সাতক্ষীরায় পৈত্রিক সম্পত্তি রক্ষা ও জীবনের নিরাপত্তার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন


185 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় পৈত্রিক সম্পত্তি রক্ষা ও জীবনের নিরাপত্তার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন
মে ২০, ২০২১ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে একটি স্বার্থন্বেষী মহল কর্তৃক জোরপূর্বক সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের এক প্রতিবন্ধির পৈত্রিক সম্পত্তি দখলের অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের আব্দুল মোতালেব মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে শ্যামনগর উপজেলার সোয়ালিয়া গ্রামের রবীন্দ্র নাথ মন্ডলের স্ত্রী সবিতা রানী মন্ডল এই অভিযোগ করেন।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমার স্বামী একজন প্রতিবন্ধি। স্বামীর পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত ১০ শতক সম্পত্তি দীর্ঘদিন ধরে আমরা শান্তিপূর্নভাবে ভোগদখল করে আসছিলাম। কিন্তু সম্প্রতি একই এলাকার মৃত নুর মোহাম্মাদের ছেলে গ্রাম পুলিশ রুহুল আমিন, আব্দুল মজিদ ও গোলাপী গংরা উক্ত সম্পত্তি অবৈধভাবে দখলের ষড়যন্ত্র শুরু করে। এই সম্পত্তি নিয়ে উল্লেখিতরা কয়েক বছর আগে আমার বৃদ্ধা শাশুড়ি মাতাকে মারপিট করলে তিনি গুরুতর আহত হন। সেই আঘাত নিয়ে পরে তিনি মারা যান। এঘটনায় শ্যামনগর উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছে লিখিত অভিযোগ দেই এবং থানায় সাধারণ ডায়েরী করি। এরপরও উক্ত ব্যক্তিরা কৌশলে আমার স্বামীর পৈত্রিক সম্পত্তি জবর দখল করতে আমাকে ও পরিবারের সদস্যদের খুন জখমসহ বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি দিয়ে যাচ্ছে। ২০১৯ সালের ২৮ জুলাই উল্লেখিত ব্যক্তিরা আমার স্বামীর পৈত্রিক ১০ শতক ভিটা হতে আংশিক দখল করে নিয়েছে। এছাড়া তারা সরকারের কাছ থেকে ইজারা নেয়া ২ শতক জমি অবৈধভাবে দখল করে বাড়ির যাতায়াতের পথ বেড়া দিয়ে দখল করে রেখেছে।
সবিতা রানী মন্ডল অভিযোগ করে বলেন, আমরা ধর্মীয় সংখ্যালঘু এবং আমার স্বামী প্রতিবন্ধি হওয়ায় রুহুল আমিন গংরা প্রভাব খাটিয়ে আমাদের সম্পত্তি দখল করে নিতে চায়। যে কোন সময় ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের সহযোগিতায় তার আমার প্রতিবন্ধি স্বামীর পৈত্রিক সম্পত্তি দখল করে নিতে পারে বলে আমরা আশংকা করছি। বর্তমানে প্রতিবন্ধি স্বামীকে নিয়ে আমি মানবেতর জীবন যাপন করছি। আমাদের এই অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে পরসম্পদলোভি প্রভাবশালীরা আমাদের পৈত্রিক সম্পত্তি অবৈধভাবে দখল করে নিচ্ছেন।
তিনি উল্লেখিত অবৈধ দখলদারদের কবল থেকে স্বামীর পৈত্রিক সম্পত্তি রক্ষা ও জীবনের নিরাপত্তার দাবিতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

#