সাতক্ষীরায় বেড়েছে গমের আবাদ


261 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় বেড়েছে গমের আবাদ
জানুয়ারি ২৪, ২০১৬ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

ইব্রাহিম খলিল :
জেলায় এবার গমের আবাদ বেড়েছে। গম চাষে খরচ কম ও লাভ বেশি হওয়ায় কৃষকরা গম চাষে ঝুকছে। কৃষি বিভাগ জেলায় এবার গম চাষের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করেছিল ১৫৬৬ হেক্টর জমিতে। কিন্তু আবাদ হয়েছে ২১৩৩ হেক্টর জমিতে। আবাদ বেশি হয়েছে ৫৬৭ হেক্টর জমিতে।

সাতক্ষীরা জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সুত্রে জানা যায়, সাতক্ষীরা সদর উপজেলায় গমের আবাদ হয়েছে ৭৫০ হেক্টর জমিতে, কলারোয়া উপজেলায় আবাদ হয়েছে ২৮০ হেক্টর জমিতে, তালা উপজেলায় ১৪২ হেক্টর জমিতে, দেবহাটা উপজেলায় ২০ হেক্টর জমিতে, কালিগঞ্জ উপজেলায় ১৫০ হেক্টর জমিতে, আশাশুনি উপজেলায় ৬৫ হেক্টর জমিতে, শ্যামনগর উপজেলায় ২৬ হেক্টর জমিতে আবাদ হয়েছে।

সাতক্ষীরা সদর উপজেলার কৃষক আতাউর রহমান জানান, তিনি এবার পাচ বিঘা জমিতে গমের আবাদ করেছেন। জমির হারি, কীটনাশক ও অন্যান্য খরচসহ তার মোট খরচ হবে ৪০ থেকে ৪৫ হাজার টাকা। যতি কোন বড় ধরণের প্রাকৃতিক দূর্যোগ না হয় তাহলে ৭০ থেকে ৮০ হাজার টাকার গম বিক্রি করতে পারবেন।
তিনি আরও বলেন গম চাষে একটু ঝামেলা বেশি। তাছাড়া উচু জায়গায় গম চাষ করতে হয়। নিচু জমিতে গমের আবাদ হয় না। উচু জায়গায় গমের আবাদ করতে হয় বলে সেচ দিতে হয়। একবার চারা রোপনের পর তিন থেকে চার বার ঘাস বেছে সার ও পোকা মাকড়ের হাত থেকে রক্ষা করতে কীটনাশক ব্যাবহার করতে হয়। তবে গম ভালো হলে ধানের চেয়ে এটি লাভাজনক বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

সাতক্ষীরা জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ আব্দুল মান্নান পরিবর্তন ডটকমকে জানান, জেলায় ধান চাষের পাশাপাশি কৃষকরা গম চাষ করে থাকেন। গম চাষ মুলত উচু জায়গায় আবাদ করতে হয়। তাছাড়া গম চাষে ঝুকি কম থাকে। জেলা সদরে বেশি গমের আবাদ বেশি হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সদরের অধিকাংশ জমি উচু। উচু জায়গায় বোরো আবাদের খরচ বেশি হয়। সেক্ষেত্রে কৃষকরা গম চাষ করে থাকেন। গম চাষে খরচ কম কিন্তু লাভ বেশি।