সাতক্ষীরায় ভুল চিকিৎসায় গৃহবধু সুমনার মৃত্যু : মূল আসামীরা এখনও ধরা পড়েনি


474 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় ভুল চিকিৎসায় গৃহবধু সুমনার মৃত্যু : মূল আসামীরা এখনও ধরা পড়েনি
সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

নাজমুল হক :
অনুমোদনহীন শহরের একতা হাসপাতালে ভুল অপারেশনে কুড়ি বছর বয়সী গৃহবধু সুমনার মৃত্যুর ঘটনায় ৮জনের নামে মামলা হলেও মূল আসামীরা ধরা পড়েনি। মামলা থেকে রেহায় পেতে তার বিভিন্ন মহলে দৌড়ঝাপ শুরু করেছেন। মৃত্যুর ঘটনায় মূল নায়ক ডা. দেবদুলাল সরকার, ডা. সুদীপ্ত শেখর দেবনাথ ও ক্লিনিক মালিক হরিদাস মন্ডলকে আটকের দাবী জানিয়েছে ভুক্তভোগীরা।

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমদাদুল হক শেখ জানায়, আসামীদের আটক করতে পুলিশ অভিযান অব্যাহত আছে। আসামীরা পলাতক থাকায় তাদেরকে এখনও গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

এদিকে, ভূল চিকিৎসায় সিজার রোগী হত্যার ঘটনায় শুক্রবার বিকেলে  সাতক্ষীরা সদর থানার একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে। নিহত সুমনার ভাই হোসাইন আলী বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন। এই মামলায় ৩ ডাক্তারসহ ৮ জনকে আসামী করা হয়েছে।

মৃত্যুর ঘটনায় অন্যতম অভিযুক্ত আসামী সাতাক্ষীরা মেডিকেল কলেজের প্যাথলজি বিভাগের প্রভাষক ড. সুদীপ্ত শেখর দেবনাথ শনিবার কলেজে যাননি।
এই হত্যা মামলার প্রধান আসামী ডা. দেবদুলাল সরকার আত্মগোপনে থেকে মামলার বাদীকে ম্যানেজ করার জন্য বিভিন্ন মহলে দৌড়ঝাপ শুরু করেছেন বলে জানাগেছে। ডাক্তার দেব দূলালের এমডি, পিএইচডি ডিগ্রি নিয়েও রয়েছে নানা বিতর্ক।

এদিকে, ক্লিনিকের প্রধান মালিক ও সদর হাসপাতাল থেকে রোগী সুমনাকে ভাগিয়ে নেওয়ার মূল হোতা হরিদাস মন্ডল অজ্ঞাত স্থানে থেকে বিভিন্ন মহলে দেনদরবার শুরু করছেন। সদর হাসপাতালের একটি সূত্র জানায়, দুই একদিনের মধ্যে আলোচিত ও হৃদয় বিদায়ক এই মৃত্যুর ময়না তদন্তের রিপোর্ট প্রদান করা হবে।

তবে মামলার বিষয়ে সুমনা’র ঘনিষ্ট এক আত্মীয় নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানায়, আসামী ও  তাদের লোকজন মামলা তুলে নেয়ার জন্য মোবাইল ফোনে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিচ্ছে।