সাতক্ষীরায় মাৎস্য ঘেরে সবজি চাষ : লাভবান চাষীরা


2314 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় মাৎস্য ঘেরে সবজি চাষ : লাভবান চাষীরা
সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
মাছের ঘেরে সবজি চাষ করে লাভবান হচ্ছে সাতক্ষীরার মৎস্য চাষীরা। লাউ, মিষ্টি কুমড়া, বরবটি, ঢেড়শ, কলা, পেপে, করলা ও সিম সহ বিভিন্ন ধরনের সবজি চাষ হচ্ছে জেলার স্বাদু পানির ঘেরগুলোতে। এতে করে চাষীরা মাছ উৎপাদনের পাশাপাশি সবজি বিক্রি করে প্রচুর অর্থ উপার্জন করছে।

সাতক্ষীরা জেলা মৎস্য অধিদপ্তর থেকে জানা গেছে, সাতক্ষীরার সাতটি উপজেলাতে চিংড়ি এবং সাদা প্রায় ৬০ থেকে ৭০ হাজার মাছের ঘের রয়েছে। এরমধ্যে প্রায় ১৫ থেকে ২০ হাজার ঘের আছে স্বাদু পানির। এসব ঘেরে রুই, কাতলা, মৃগেল, ভেটকিসহ নানা প্রকার মাছ উৎপাদন করা হয়। এসব মিঠা পানির ঘেরগুলোতে গত কয়েক বছর যাবত বিভিন্ন প্রকার সবজি চাষ হচ্ছে।

সাতক্ষীরা সদর উপজেলার জেয়ালা গ্রামে ৪০ বিঘার একটি সাদা মাছের ঘের করেন শহরের পুরাতন সাতক্ষীরা এলাকার হাসান আলী। এই ঘেরে তিনি মাছ উৎপাদনের পাশাপাশি বিভিন্ন প্রকার সবজি চাষও করছেন। ঘেরের ভেড়ির সাথে মাচান করে তাতে লাউ, মিষ্টি কুমড়া, বরবটি, ঢেড়শ, কলা, পেপে, করলা ও সিম চাষ করেন। প্রতিদিন তার ঘের থেকে ঢেড়শ, বরবটি, করলা ও লাউ উত্তোলন করে স্থানীয় বড় বাজারে বিক্রি করা হচ্ছে। গত বছর সবজি বিক্রি করেন ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা। তবে এবার ঘেরের ভেড়িতে যে পরিমান সবজি ধরেছে তাতে করে কমপক্ষে ২ লক্ষাধীক টাকা বিক্রি হবে বলে আশা করছেন তিনি। ইতি মধ্যে প্রায় ১ লাখ টাকার সবজি বিক্রি হয়ে গেছে চলতি মৌসুমে।

জেলার তালা উপজেলার শাকদাহ গ্রামের মাছ চাষী মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, শাকদাহ বিলে ২৫ বিঘার একটি ঘেরে বিভিন্ন প্রকার সাদা মাছ চাষ করেন। গত দুই বছর ওই ঘেরে মাছ উৎপাদনের পাশাপাশি নানা ধনের সবজি চাষ করছেন। এতে বছরে ১ লাখ টাকার উপরে বাড়তি লাভ করেন সবজি বিক্রি করে। তিনি আরো বলেন, তার দেখা দেখি এলাকার অনেক ঘের ব্যবসায়ীরা এখন মাছের পাশাপাশি সবজি চাষে ঝুকছেন।

সাতক্ষীরা সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. আব্দুল বারী ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকমকে জানান, মাছের ঘেরে সবজি চাষ খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে সাতক্ষীরায়। চাষীরা মাছ উৎপাদনের পাশাপাশি সবজি বিক্রি হরেও প্রচুর অর্থ উপার্জন করছেন। অনেক চাষী সবজি বিক্রি করে তার ঘেরের হারির টাকা পরিশোধ করছেন। তাছাড়া এতে বাড়তি তেমন একটা খরচও হয় না। তিনি বলেন, সাতক্ষীরা সদর উপজেলাতে অন্তত ৬ থেকে ৭ হাজার ঘেরে মাছ চাষের পাশাপাশি সবজি চাষ হচ্ছে। তাছাড়া লোনা পানির চিংড়ি ঘেরেও এখন সবজি চাষ হচ্ছে বলেও জানান তিনি।