সাতক্ষীরায় মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানিসহ ক্রস ফায়ারের ভয় দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন


383 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানিসহ ক্রস ফায়ারের ভয় দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন
নভেম্বর ২৯, ২০১৫ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সাতক্ষীরার আশাশুনির বড়দল গ্রামের আফসার সরদারের ছেলে আয়ুব সরদার এলাকার আ’লীগ নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানি করার পাশাপাশি ক্রস ফায়ারের ভয় দেখিয়ে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। রোববার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন ৫নং বড়দল ইউনিয়ন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক বড়দল গ্রামের মোঃ আব্দুল আজিজের ছেলে মোঃ আবু বকর সিদ্দিক গাজী।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সিদ্দিক গাজী বলেন, আয়ুব সরদার বড়দল ইউনিয়নের সাবেক এক চেয়ারম্যানের প্রশ্রয়ে থেকে দীর্ঘদিন ধরে থানায় দালালি করে আসছে। সে এলাকার চাকুরীজীবি, সাধারণ মানুষ ও আ’লীগ নেতা কর্মীসহ অনেক সাধারণ মানুষকে একের পর এক মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে দিয়ে এলাকা ছাড়া করেছে। তার অত্যাচারে অনেকে নিঃস্ব হয়ে গেছে। এ

ই আয়ুব ও তার প্রশ্রয়দাতা নাশকতার মামলায় জড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে এলাকার সাধারণ মানুষের কাছ থেকে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। কেউ তাদের বিরুদ্ধে কথা বললে তাকে পুলিশে ধরিয়ে দিচ্ছে। আ’লীগ নেতাকর্মীদের হয়রানি করে সে এলাকায় জামায়াত-বিএনপি’র নিরাপদ জনপদে পরিনত করেছেন। তার ও পরিবারের সদস্যদের নামে জামায়াতের মহিলা কর্মী মুর্শিদা খানম ও মোমেনা খাতুনকে দিয়ে একাধিক মিথ্যা মামলা করিয়েছে এই আয়ুব। এছাড়া এলাকার মুজিবর সানা, নজরুল গাজী, টুটুল সানা, জালাল গাজী, হাকিম গাজী, হাবিবুর রহমান গাজী, বেল্লাল ঢালী, সেকেন্দার ঢালীসহ এলাকার বহু নীরিহ মানুষকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে নিঃস্ব করে ছেড়েছে।

এক সময়ের অভাবী আয়ুব এখন লক্ষ লক্ষ টাকার মালিক। পুলিশের ভয় দেখিয়ে নিরক্ষর সে এলাকার শিক্ষত, চাকুরিজীবিসহ সুশিল সমাজের মানুষকে শাসিয়ে বেড়াচ্ছে। পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের নাম ভাঙ্গিয়ে নিরব চাঁদাবাজি করে যাচ্ছে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, আয়ুব স্থানীয় সবুর মালীর স্ত্রী মুর্শিদা খানমকে প্ররোচিত করে তার ও তার স্ত্রী, চাচা, চাকুরিজীবী ভাই, ভায়ের স্ত্রী, ফুপাতো ভাই ও বোনকে জড়িয়ে একাধিক মিথ্যা মামলা করে। পরে পুলিশকে ম্যানেজ করে তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা চার্জশীট দাখিল করান। ফলে এর প্রতিকার চেয়ে তার ভাই মোঃ ইয়াসিন আলি পুলিশ মহা পরিদর্শকের নিকট একটি আবেদন করেন যা বর্তমানে কালিগঞ্জ সার্কেল এ.এস.পির নিকট তদন্তাধীন রয়েছে।
আয়ুব এই দরখাস্ত তুলে নেয়ার জন্য তাকে হুমকি দেয়।  না হলে তাকে ক্রস ফায়ারে দেয়াসহ পরিবারের অন্য সদস্যদের  মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে  গ্রেফতার করার হুমকি দিচ্ছে। বর্তমানে আয়ুব আলীর ভয়ে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে নিয়ে তিনি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। রাতে কেই বাড়িতে থাকতে সাহস পাচ্ছে না। তিনি আয়ুবসহ তার অর্থের যোগনদাতা গডফাদারদের বিরুদ্ধে শ্বাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পুলিশ সুপারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।