সাতক্ষীরায় যুবলীগ নেতা-কর্মীদের নামে মামলা করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন


454 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় যুবলীগ নেতা-কর্মীদের নামে মামলা করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন
সেপ্টেম্বর ১, ২০১৫ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সাতক্ষীরার শ্যামনগরে আওয়ামীলীগ নেতার মদদে এক  শিবির কর্মী স্থানীয় যুবলীগ নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যে মামলা দায়ের করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তারা এই মিথ্যে মামলার দায় থেকে অব্যহতির দাবি জানিয়েছেন। মঙ্গলবার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানান উপজেলার অটুলিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দ।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, শ্যামনগর উপজেলার ছোটকুপট গ্রামের মাওলানা অব্দুল গফুরের ছেলে মোঃ আবু সাইদ গত ২৭ আগষ্ট বেলা ১১ টার দিকে নওয়াবেকী বাসষ্ট্যান্ডে একটি চায়ের দোকানে বসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সর্স্পকে কুটোক্তি করে। পরে যুবলীগ নেতাকর্মীরা তাকে ডেকে স্থানীয় আ’লীগ নেতা মোজাম্মেল হক এবং আটুলিয়া ইউনিয়ন আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল গফুর ঢালীর উপস্থিতিতে শোনাবোঝা করা হলে ঘটনার সত্যতা মেলে। এঘটনার পর স্থানীয় জনতা ফুঁসে উঠে। প্রতিবাদে এলাকায় যুবলীগের নেতৃত্বে মিছিল ও পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি কামরুল ইসলাম বিষয়টি দেখছেন বলে সকলকে শান্ত করেন। কিন্তু পরবর্তীতে মোটা অংকের অর্থের বিনিময় তাকে ছেড়ে দেয়া হয়।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, এঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার লক্ষ্যে জামায়াত নেতা মোঃ আবু সাইদ বাদী হয়ে ২৯ আগষ্ট স্থানীয় যুবলীগ নেতাকর্মীদের নামে থানায় একটি মিথ্যে মামলা দায়ের করে। মামলার বাদী সাইদ ছাত্র শিবিরের একজন সক্রিয় কর্মী ও তার বাবা অব্দুল গফুর ওয়ার্ড জামায়াতের সেক্রেটারী। সাইদের পরিবারের সকলেই জামায়াতের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত। তারা সকলেই ২০১৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারীর পর নওয়াবেকী বাজারের বাসষ্টান্ডে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিকী কবর তৈরী  ও স্থানীয় আ’লীগ কার্যালয় ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত ছিল। কিন্তু সে সময়ও তারা মোটা অংকের অর্থের বিনিময় কতিপয় আ’লীগ নেতাদের ম্যানেজ করে মামলা থেকে রেহাই পেয়ে যায়। বর্তমানে একই ভাবে যুবলীগ নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যে মামলা দায়ের করেছে। কতিপয় অসাধু নেতার চাপের মুখে পুলিশ মামলা নিতে বাধ্য হয়েছে। একজন স্কুল শিক্ষককে এই মামলায় আসামী করা হয়েছে।

যুবলীগ নেতারা এই মিথ্যে মামলার দায় থেকে সকলকে অব্যহতি দেয়ার পাশাপাশি শিবির নেতা আবু সাইদ এর বিরুদ্ধে আইনহত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীসহ স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলনে আটুলিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক আবুল হাসান, যুগ্ম আহবায়ক শেখ শাহাদাত হোসেন ও সাজেদুর রহমান, সদস্য আসাদুজ্জামান, বেলালা হোসেন, যুবলীগ নেতা কামরুল ইসলাম, শিক্ষক মঈনুল ইসলাম এবং ওবায়দুল কবিরসহ স্থানীয় যুবলীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।