সাতক্ষীরায় সাংবাদিক ইয়ারব হত্যা প্রচেষ্টার আসামিদের গ্রেফতারের দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ


322 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরায় সাংবাদিক ইয়ারব হত্যা প্রচেষ্টার আসামিদের গ্রেফতারের দাবিতে প্রতিবাদ সমাবেশ
ডিসেম্বর ১, ২০১৮ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

শেখ আমিনুর হোসেন ::

সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক মানবজমিনের জেলা প্রতিনিধি ইয়ারব হোসেন হত্যা প্রচেষ্টার পাঁচ বছরপুর্তিতে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শুক্রবার বিকালে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার তুজলপুর কৃষিক্লাবে মুক্তিযোদ্ধা ডা.আবুল হোসেনের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঝাউডাঙ্গা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ খলিলুর রহমান বলেন, দীর্ঘ পাঁচ বছর অতিবাহিত হলেও সাংবাদিক ইয়ারব হোসনকে হত্যাচেষ্টাকারী জামাত-শিবিরের সেই সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করা হয়নি। বর্তমানে প্রকাশ্যে থাকা এসব সন্ত্রাসীদের ভয়ে সাংবাদিকসহ সাধারণ মানুষ চরম আতংকে রয়েছেন। জামাত-শিবির সন্ত্রাসীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করতে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়েছে।

বিক্ষোভ সমাবেশে আরো উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেন, সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলম, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের অর্থ সম্পাদক ও দৈনিক কালের কন্ঠের জেলা প্রতিনিধি মোশাররফ হোসেন, কলারোয়া উপজেলা রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক ইত্তেফাকের কলারোয়া সংবাদদাতা পলাশ চৌধুরী, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক আমাদের সময় পত্রিকার প্রতিনিধি মোস্তাক আহমেদ, ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রমজান আলী বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক অমরেন্দ্র নাথ ঘোষ, প্রেসক্লাবের কলারোয়া সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক পত্রদূতের উপজেলা প্রতিনিধি শেখ জুলফিকারুজ্জামান জিল্লু, সাংবাদিক রাশেদুল ইসলাম কামরুল, কলারোয়া প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক আতাউর রহমান, ইউপি সদস্য শরিফুজ্জামান ময়না, ব্যবসায়ী মাসুদুর রহমান, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক আশরাফুল ইসলাম বাবলু, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আজাদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবুল খায়ের, যুবলীগ নেতা আব্দুর রশিদ, বনি আমীনসহ দুই শতাধিক এলাকার সাধারণ মানুষ।
প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সাংবাদিক ইয়ারব হোসেনকে হত্যার চেষ্টাকারী জামাত-শিবির সন্ত্রাসীসহ এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা এলাকায় অবস্থান করায় এলাকার মানুষ নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। তাদের দাবি, যে কোন সময় এসব সন্ত্রাসীরা আবারো হামলা চালাতে পারে। সমাবেশ থেকে সাংবাদিক ইয়ারব হত্যাচেষ্টাকারী জামাত-শিবির সন্ত্রাসী ও তাদের মদদ দাতাসহ তুজুলপুর এলাকায় চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশ প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানানো হয়।
এসময় জামায়াত-শিবির সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন কান্না জড়িত কন্ঠে সেদিনের ঘটনা বর্ণনা করার সময় উপস্থিত সকলে অশ্রুসিক্ত হয়ে পড়েন। পরে তিনি সকলের নিকট নিজের সুস্থতার জন্য দোয়া চান।
প্রসঙ্গত; ২০১৩ সালের ৩০ নভেম্বর সকালে তুজুলপুর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলযোগে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে যাওয়ার সময় পতিমধ্যে সদরের আখড়াখোলা এলাকার দেবনগর নামক স্থানে রাস্তার উপর জামায়াত-শিবিরের চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালায় পরে মৃত ভেবে তাকে ফেলে রেখে উল্লাস করতে করতে চলে যায়।