সাতক্ষীরা অনলাইন শপের সেলার সীমার উদ্যোক্তা হওয়ার গল্প


215 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা অনলাইন শপের সেলার সীমার উদ্যোক্তা হওয়ার গল্প
মে ৫, ২০২১ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

শখের বশে আমরা কতো কিছুই তো করি, কিছুদিন পরেই সেটা আবার ভুলে যায়। অন্যদের থেকে এই জায়গাতেই মেয়েটি আলাদা। শখের বশে উদ্যোক্তা হওয়ার চেষ্টা সেটাও মাত্র ৫০০০ টাকা দিয়ে হিজাব কিনে। আজকের দিনে ঈদের মার্কেটই এই টাকায় অনেকের হয় না। আন্তরিকতা, চেষ্টা, পরিশ্রম আর হার না মানার মানসিকতাই মেয়েটিকে আজ এই সফল উদ্যোক্তার জায়গায় এনে দাঁড় করিয়েছে। এইটুকু পড়েই বাংলা সিনেমার শুভ সমাপ্তি ভাববেন না কেউ।

এটা তো শেষের অংশ! শুরুটা মোটেই আনন্দদায়ক কিছু ছিলো না। শুরুর দিকে সাপোর্ট তেমন কারো ছিলো না। অনেকে পিছন থেকে টেনে থামিয়ে দিতে চেয়েছে মেয়েটিকে। এই কাজ তোমার দ্বারা হবেনা, তুমি এই কাজের যোগ্য নও-এই কথাগুলোই একজন মানুষের মনোবল চুরমার করে দেওয়ার জন্যই যথেষ্ট।

আবার অনেকে এটাও বলেছে এই কাজ করা তোমার মতো মেয়ের সাথে যায়না, তুমি কেনো এই সব বিক্রি করবেঐ সব মধ্যযুগীয় মানসিকতা যেটা থেকে আজও আমাদের বের হওয়া হয়নি। চাকুরিজীবি না হয় ডক্টর, ইঞ্জিনিয়ার এর বাইরে ভাববার মতো সময় যেনো কারো নেই।

এই কঠিন সময়ে মেয়েটির স্বামী ছায়ার মতো পাশে ছিলো। কাঁধে হাত রেখে বলেছিলো আমি পাশে আছি, তুমি ভয় পেয়োনা। এই আশ্বাসটুকুই একজন মেয়ের জন্য যথেষ্ট। এতো এতো বাজে কথা শোনার পরে ও মেয়েটি থেমে থাকেনি। আমি কিছু করব, আমি পারব! শুধুমাত্র এটার উপর ভরসা করেই মেয়েটি আজ একজন সফল উদ্যোক্তা. সেটা মাত্র তিন মাসের অক্লান্ত পরিশ্রম, সততা আর চেষ্টার বিনিময়ে।

সেদিন যে মানুষগুলা মেয়েটিকে পিছনে টেনে ধরতে চেয়েছিলো, নানারকম কটু কথা শুনিয়েছিলো আজ তারাই সবার আগে মেয়েটিকে বাহবা দেয়। সততার সাথে পরিশ্রম করে গেলে প্রকৃতি কাউকে কখনো নিরাশ করেনা।

মেয়েটি বর্তমানে কাজ করছে ওয়েস্টার্ন ড্রেস, থ্রী-পিস সহ সকল প্রকার কসমেটিকস আইটেম নিয়ে।

“সাতক্ষীরা অনলাইন শপ”-গ্রপের সাথে মেয়েটির পথচলা শুরু ২ রা নভেম্বর ২০২০ ইং তারিখে।

সততা,চেষ্টা আর আন্তরিকতায় মেয়েটি আজ “সাতক্ষীরা অনলাইন শপ”– গ্রপের একজন সম্মানিত মডারেটর। আজ তার জন্মদিন! শুভ হোম সীমার জীবনের প্রতিটি দিন। পূরন হোক তার প্রতিটি চাওয়া। সমাজে যে সব বেকার যুবক যুবতী নিজে কিছু করার চেষ্টা না করে চাকুরীর আশায় বসে আছেন তাদের সীমা হতে পারেন অনুপ্রেরণা। সীমাকে অনুসরণ করে সমাজের অনেকেই উদ্যোক্তা হিসাবে এগিয়ে এসে নিজেই নিজের কর্মসংস্থান করতে পারেন পাশাপাশি সমাজের অনেক বেকারের ভার তুলে নিতে পারেন নিজের কাঁধে।

মেয়েটির নাম- সীমা জাহান।

ফেইসবুক পেইজের নামঃ Sima’s Collection

লিখেছেনঃ সাতক্ষীরা অনলাইন শপের উদ্যোক্তা নার্গিস সুলতানা

নার্গিসের পেজের নামঃ লিপির আয়োজন

কৃতজ্ঞতায়ঃ

শেখ ইমরান হোসেন

এডমিনঃ Satkhira Online Shop Group

পরিচালকঃ সাতক্ষীরা অনলাইন শপ