সাতক্ষীরা উপকূলে বৃষ্টি ও দমকা হাওয়া শুরু, আশ্রয়কেন্দ্রের দিকে ছুটছে মানুষ


206 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা উপকূলে বৃষ্টি ও দমকা হাওয়া শুরু, আশ্রয়কেন্দ্রের দিকে ছুটছে মানুষ
মে ১৯, ২০২০ দুুর্যোগ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

॥ সামিউল মনির ॥

ঘূর্ণিঝড় থেকে সুপার সাইক্লোনে রুপ নেয়া ‘আম্ফান’র প্রভাবে মঙ্গলবার দুপুরের পর থেকে শ্যামনগর উপজেলায় বৃষ্টি শুরু হয়েছে। এসময় ঝড়ো বাতাসের পাশাপাশি প্রচন্ড বেগে দমকা হাওয়া বইতে শুরু করেছে। জোয়ারের পানি বৃদ্ধির সাথে সাথে পাশর্^বর্তী নদীসমুহ ক্রমেই উত্তাল হয়ে উঠেছে।
এদিকে দুপুর পর্যন্ত গাবুরা ও পদ্মপুকুরের প্রায় সাত হাজার মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। দ্বীপ ইউনিয়ন গাবুরাসহ উপজেলার অপরাপর ঝুঁকিপুর্ন এলাকা থেকে আরও লক্ষাধিক মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিতে কোষ্টগার্ড, পুলিশ ও বিজিবিসহ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলো তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া উপজেলাকে ঘিরে থাকা উপকুল রক্ষা বাঁধের লেবুবুনিয়া, জেলেখালী, দাতিনাখালী, দুর্গাবাটির ৩টি পয়েন্ট ছাড়াও ঘোলা এবং ঝাঁপালী এলাকার বাঁধে জরুরী ভিত্তিতে সংস্কার কাজ শুরু করেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল খায়ের ও উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী রাশিদুল রহমানসহ অপরাপর কর্মকর্তারা ভাঙনমুখে থাকা এলাকায় অবস্থান করে সংস্কার কাজ তদারকি করছে।
এদিকে মঙ্গলবার দুপুরে গাবুরা থেকে স্থানীয়দের শ্যামনগর উপজেলা সদরে সরিয়ে নেয়ার কাজে বিঘœ সৃষ্টি করায় সফিউল আযম লেনিন নামের ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যানকে আটক করে পুলিশ।
শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আ ন ম আবুজর গিফারী জানিয়েছে ঝুঁকিপুর্ন এলাকার প্রায় এক লাখ ২০ হাজার মানুষকে নিরাপদে সরিয়ে নেয়ার জন্য ১০৩টি সাইক্লোন শেল্টারসহ ৪৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রস্তুত করা হয়েছে।

#