সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়কের সংস্কার কাজ বন্দ : চরম দুর্ভোগে পথচারিরা


845 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়কের সংস্কার কাজ বন্দ : চরম দুর্ভোগে পথচারিরা
জানুয়ারি ৭, ২০১৯ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

 

॥ গোলাম সরোয়ার ॥
——————-
সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়কে চলমান রাস্তা সম্প্রসারন কাজ বন্দ থাকায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন জনসাধারন। সড়কের বিনেরপোতা হতে সাতক্ষীরার কাটিয়া পর্যন্ত রাস্তার উপর বিছানো নুড়ি পাথর ও ধুলোবালিতে বিভিন্ন যানবাহনসহ সাধারন মানুষের চলাচলে চরম ভোগান্তি নেমে এসেছে। ধুলা-বালি-নুড়ি পাথরের কারণে দিনের বেলাকে মনে হচ্ছে রাত।

তবে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্টান বলছে খুব শীঘ্রই কাজ শুরু করা হবে তখন আর এই ভোগান্তি থাকবে না।

সাতক্ষীরা জেলা বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির আহবায়ক অধ্যক্ষ আবু আহমেদ জানান, বিনেরপোতা থেকে সাতক্ষীরা আমতলা মোড় পর্যন্ত ৫ থেকে ৬ কিলোমিটার রাপস্তাজুড়ে নুড়ি পাথর যে ভাবে বিছিয়ে রয়েছে তাতে করে যাত্রীবাহি বাস-মিনিবাস চলাচলে মারাত্মক ব্যাহত হচ্ছে। তিনি বলেন, ওই নুড়ি পাথরের কারনে ভারি যানবাহনের টায়ার নষ্ট হয়ে যাওয়ার পাশাপাশি পাতি ভেঙ্গে যাচ্ছে। শুধু তাই না ওই ৫/৬ কিলোমিটার রাস্তা ড্রাইভাররা গাড়ীর নিয়ন্ত্রন রাখতে হিমশিম খাচ্ছে চালকরা। তিনি অতিদ্রুত বিনেরপোতা থেকে সাতক্ষীরা পর্যন্ত রাস্তার এই বেহালদশা থেকে সাধারন মানুষের মুক্তি দিতে সংশ্লিষ্ট সড়ক ও জনপদ এবং ঠিকাদারী প্রতিষ্টানকে অনুরোধ জানান।

সাতক্ষীরা জেলা নাগরিক কমিটির আহবায়ক অধ্যাপক মো. আনিসুর রহিম জানান, সাতক্ষীরার সবচেয়ে ব্যবস্তম মহাসড়ক সাতক্ষীরা-খুলনা সড়ক। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এবং ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতার কারনে এই সড়কে যানচলাচলে চরমদুর্ভোগ সুষ্টি হয়েছে। ছোটখাটো যানের পাশাপাশি যাত্রীবাহী বাস যাতয়াতে মুশকিল হয়ে পড়েছে। জনসাধারনের দুর্ভোগের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে দ্রুত এই সমস্যার সমাধানে জরুরী ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান তিনি।

সাতক্ষীরা সড়ক ও জনপদ অফিস সুত্রে জানা গেছে, আঞ্চলিক মহাসড়ক যথাযথ মান ও প্রশস্ত করন প্রকল্পের অধিনে ১০০ কোটি টাকা ব্যয়ে সাতক্ষীরা-খুলনা মহাসড়কের সম্প্রসারন কাজ পান বাগেরহাটের ঠিকাদারী প্রতিষ্টান মেসার্স মোজাহার এন্টারপ্রাইজ। দুটি প্যাকেজের কাজের কার্যাদেশ দেয়া হয় ২০১৮ মার্চ মাসে। প্যাকেজ দুটোর মধ্যে রয়েছে সাতক্ষীরা থেকে শুভাষিনী ও শুভাষিনী হতে খুলনা ১৮ মাইল পর্যন্ত। যার কাজ শেষ হওয়ার মেয়াদ ২০২০ সালের জুন মাস পর্যন্ত।

ঠিকাদারী প্রতিষ্টানটির নিজস্ব প্রকৌশলী খোকন জানান, নির্বাচনের কারনে কিছুদিন কাজ বন্দ রয়েছে। তবে দু‘একদিনের মধ্যে আবারো শুরু হবে। তাছাড়া কাজের অগ্রগতি খুবই ভালো। তিনি বলেন, দুটি প্যাকেজের কাজের মধ্যে শুভাষিনী থেকে ১৮ মাইল পর্যন্ত প্রায় ৯০ শতাংশ শেষ এবং সাতক্ষীরা হতে শুভাষিনী প্রায় ৬০ শতাংশ শেষ হয়েছে। আশা করা হচ্ছে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বাকি কাজ শেষ হয়ে যাবে।

সাতক্ষীরা সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মঞ্জুরুল ইসলাম জানান, কাজ ওই অর্থে বন্দ বলা যাবে না। যে‘হেতু জাতিয় নির্বাচন ছিলো ৩০ ডিসেম্বর। সেকারন লেবার বা অন্যান্য লোকজন এলাকায় চলে গিয়েছিলো বলে কিছুদিন তারা কাজে যোগ দিতে পারেনি। তবে দ্রুত যাতে করে আরাম্ভ করা হয় সে জন্যে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেয়া হবে।
###