সাতক্ষীরা জেলা তাঁতীলীগের উন্নয়ন শীর্ষক আলোচনা সভা


355 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা জেলা তাঁতীলীগের উন্নয়ন শীর্ষক আলোচনা সভা
সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৭ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্রষ্টার এবাদত সৃষ্টির সেবা ও কর্মসেবা প্রগতিকে বুকে ধারণ করে সাতক্ষীরা জেলা তাঁতীলীগ আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের বিজয়ের লক্ষে ও জননেত্রী শেখ হাসিনাকে পুনরায় প্রধানমন্ত্রী করতে তৃণমুল পর্যায়ে উন্নয়ন শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার শহরের তুফান কনভেনশন সেন্টারে জেলা তাঁতীলীগের সভাপতি মীর আজাহার আলী শাহিনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ তাঁতীলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম সদস্য শ্রীমতি শিখা রাণী দাস।

জেলা তাঁতীলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ তৌহিদ হাসানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা সহ-সভাপতি শাওকিত হাসান রনি, নাসির উদ্দিন, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শেখ আজিম হোসেন জেলা তাঁতীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুজ্জামান খান তুহিন, অর্থ সম্পাদক আব্দুল মালেক, কালিগঞ্জ উপজেলা তাঁতীলীগের

সভাপতি আমির আলী, দেবহাটা উপজেলার আহবায়ক নাসির উদ্দিন, আশাশুনি উপজেলার আহবায়ক সেলিম রেজা, কলারোয়া উপজেলার আহবায়ক অধ্যক্ষ বেলাল হোসেন আবির, পৌর তাঁতীলীগের সহ-সভাপতি নুর জাহান সাদিয়া, সাধারণ সম্পাদক ক্যাপ্টেন হোসেন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মাসুদ আলীসহ জেলার ৬টি উপজেলার সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকসহ পৌর ৫ ও ৬নং ওয়ার্ড তাঁতীলীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, সাতক্ষীরা জেলায় মোট ২৪ হাজার তাঁতী পরিবার আছে। এ জেলার এ সকল অবহেলিত তাঁতীদের উন্নত প্রশিক্ষনের মাধ্যমে এই শিল্পকে আরো উন্নত করতে হবে। আর এ কাজটি একমাত্র শেখ হাসিনার মত মেধা সম্পন্ন রাষ্ট্র প্রধান দ্বারা সম্ভব।

এজন্য আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক কে আবারও বিজয়ী করে এ শিল্পকে শেখ হাসিনার নেতৃত্বের মাধ্যমে আরো উৎজীবীত করে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে হবে। আর এ শিল্পের মাধ্যমে বাংলাদেশ যাতে রাজস্ব আয় বাড়াতে পারে সে লক্ষে তাঁতীলীগকে বেশি বেশি করে কাজ করতে হবে।

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করায় তাঁতীলীগের মূল লক্ষ্য। সকল ভেদাভেদ ভুলে আগামী সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক কে বিজয়ী করে শেখ হাসিনার হাতকে আরো শক্তিশালী করতে হবে। তাহলে বাংলাদেশ থেকে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ক্ষুধা দারিদ্র মুক্ত, রাজাকার ও জঙ্গীমুক্ত সোনার বাংলা গড়া সম্ভব হবে।(প্রেস বিজ্ঞপ্তি)
##