সাতক্ষীরা জেলা পরিষদে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন যারা


323 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা জেলা পরিষদে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন যারা
সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২২ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

চেয়ারম্যান ২, সংরক্ষিত নারী সদস্য ১১ ও সদস্য ২৭ জন

ডেস্ক রিপোর্ট ::

সাতক্ষীরা জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ২জন, ৩টি সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডে সদস্যা পদে ১১জন ও ৭টি সাধারণ ওয়ার্ডে সদস্য পদে ২৭জন প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় অফিস চলাকালিন পর্যন্ত ৩টি পদের বিপরীতে মোট ৪০জন প্রার্থীর মনোনয়ন গ্রহণের কথা নিশ্চিত করেছেন জেলা নির্বাচন ও সহকারি রিটানিং কর্মকর্তা ফারাজী বেনজির আহমেদ।

চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের একাধিকবার নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বর্তমান প্রশাসক মো: নজরুল ইসলাম। অপরদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন সাতক্ষীরার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এম. খলিলুল্লাহ ঝড়ু । তিনি সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংক লিমিটিডের চেয়ারম্যান, ঢাকাস্থ সাতক্ষীরা জনসমিতির সভাপতি। ছাত্র জীবনে তিনি ছাত্রলীগের দাপুটে নেতা ছিলেন । তিনি ১৯৭৬ সালে জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন-আহবায়ক এবং ১৯৭৭ সালে সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগের আহবায়কের দাযিত্ব পালন করেন। ১৯৮০ সালে এম খলিলুল্লাহ ঝড়ু সাতক্ষীরা পৌর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ছিলেন। ১৯৮০ সালের পর থেকে তিনি আর রাজনীতিতে স্বক্রিয় ছিলেন না। বর্তমানে তিনি আওয়ামী লীগের কোন পদপদবিতে নেই। তবে বরাবরি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী, স্বাধীনতার স্বপক্ষের মানুষ তিনি।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সংরক্ষিত নারি সদস্যা পদে ১নং ওয়ার্ডে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ছবোর আলীর কন্যা ও বীরমুক্তিযোদ্ধা মরহুম মোসলেম উদ্দীনের স্ত্রী রোকেয়া মোসলেম উদ্দীন ও রমজান আলীর মেয়ে মাহফুজা সুলতানা।

সংরক্ষিত ২নং ওয়ার্ডে সদস্যা পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন আবুল কালামের কন্যা তহমিনা ইসলাম ও ওবায়দুর রহমানের কন্যা সোনিয়া পারভীন শাপলা, মৃত মো: আবু নেছার সিদ্দিক এর কন্যা শাহনেওয়াজ পারভীন, সৈয়দ আব্দুল ওয়াদুদ এর কন্যা নাজমুন্নাহার মুন্নি ও আজিজ কারিগরের কন্যা রাশিদা খাতুন।

সংরক্ষিত ৩নং ওয়ার্ডের সদস্যা পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন শেখ লুৎফর রহমানের কন্যা রোজিনা পারভীন, অরুপ কুমার মাহলদারের কন্যা শিল্পী রাণী মহালদার ও মনসুরুল হকের কন্যা ফতেমা খাতুন রিক্তা ও আবুল কাশেমের কন্যা রোকেয়া খাতুন।

এছাড়া সদস্য পদে ১নং ওয়ার্ডে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ইন্দ্রজিত দাস, সফিকুল ইসলাম ও মীর জাকির হোসেন।

২নং ওয়াডে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন মতিয়ার রহমান গাজী, শেখ আশিকুর রহমান ও আমজাদ হোসেন।

৩নং ওয়ার্ডে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন মনিরুল ইসলাম, গোলাম মোস্তফা ও আব্দুল আনিস খান চৌধুরি ও সৈয়দ আমিনুর রহমান।

৪নং ওয়ার্ডে সদস্য পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন মো: আশিকুর রহমান, নজরুল ইসলাম ও আল ফেরদৌস।

৫নং ওয়ার্ডে সদস্য পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন মো: ফজলুল হক, মো: নুরুজ্জামান ও শেখ ফিরোজ কবির।

৬নং ওয়ার্ডে সদস্য পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন আব্দুল হাকিম, মহিতুর রহমান, সামসুল আলম, হাবিবুর রহমান ও তোষিকে কাইফু।

৭নং ওয়ার্ডে সদস্য পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ৬ন। এদের মধ্যে মোর্তজা কামাল, গোলাম মোস্তফা, ডালিম কুমার ঘরামী, মল্লিক ফজলুল হক, মাকছুদুর রহমান ও মোহাম্মদ নুরুল হক।

এদিকে জেলা নির্বাচন অফিসের দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, চলতি জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়ন জমা হওয়ার পর আগামী ১৮ সেপ্টেম্বর যাচাই বাছাই এবং আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিন রয়েছে। এরপর আগামী ১৭ অক্টোবর সোমবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ইভিএম এর মাধ্যমে ১হাজার ৬১জন ভোটার থাকলেও সদরের আলিপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড সদস্য সাময়িক বরখাস্ত থাকায় তার ভোট প্রদান করা যাবে কি না সে ব্যাপারে জেলা নির্বাচন অফিস কমিশনের মতামত চেয়েছেন।