সাতক্ষীরা নবারুন উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের সাফল্য


1086 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা নবারুন উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের সাফল্য
মে ১৪, ২০১৭ ফটো গ্যালারি শিক্ষা
Print Friendly, PDF & Email

আব্দুর রহমান ::
২০১৭ সালের এসএসির ফলে ৯টি জিপিএ-৫ পেয়ে নবারুন উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় এবারও উপজেলায় শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছে। প্রধান শিক্ষক আব্দুল মালেক গাজী জানান, ২০১৭ সালের এসএসসি পরিক্ষায় মোট ১০৬ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে গোল্ডেন এ+ ১ জন, এ+ ৮ জন, এ ৪৬ জন, এ- ২৫ জন, বি ১৬ জন এবং সি ৩ জন। এবছর এসএসসি পরিক্ষার ফলাফলে বিগত ১৬ বছরের মধ্যে সেরা ফলাফল অর্জন হয়েছে। সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালের জেএসসিতে এ বিদ্যালয় থেকে ১১৯ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়ে ১১৯ ভালো ফলাফল করে। এর মধ্যে এ+১৩ জন, এ গ্রেড ৫২ জন, এ- ৩০জন, বি গ্রেড ১৬ জন এবং সি  গ্রেড ৮জন। ১৩ জন এ+ এর মধ্যে ৪ জন গোল্ডেন এ+ ও ১ জন টেলেন্টপুল বৃত্তি পায়।
বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রোকসানা খাতুন জানায়, নবম শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ ব্যাচ চালু করা হয়। শিক্ষার্থীরা কোথাও প্রাইভেট পড়তে পারে না। সব দায়িত্ব নেয় এই বিদ্যালয়। শিক্ষার্থীদের জন্য অতিরিক্ত ক্লাস দেওয়া হয়। আমাদের দুর্বলতা খুঁজে বের করে আলাদাভাবে পড়ানো হয়। মডেল টেস্ট বা অন্যান্য পরিক্ষায় শিক্ষার্থীদের খাতা মূল্যায়নের পর অভিভাবকদের দেওয়া হয়। শিক্ষার্থীদের দুর্বলতা দূর করার জন্য বিশেষ মনোযোগ দেন শিক্ষকেরা।
বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা বলেন, নবারুন উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক আব্দুল মালেক স্যার যোগদানের পর থেকে বিদ্যালয়ের পাবলিক পরিক্ষার ফলাফল বিগত ১৬ বছরের ইতিহাসকে পিছনে ফেলে সেরা সাফল্য অর্জন করেছে। সদর উপজেলার বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে নবারুন উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় এবার উপজেলায় শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছে। আগামী দিনে এই বিদ্যালয়টি অন্যান্য বিদ্যালয়ের মডেল হিসেবে পরিচিতি লাভ করবে বলে আমরা আশাকরি।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল মালেক গাজী বলেন, আমাদের বিদ্যালয়ের ভালো ফলাফল অর্জনের জন্য আমরা সব সময় শিক্ষার্থীদের ক্লাসের প্রতি মনোযোগি এবং দুর্বল শিক্ষার্থীদের জন্য আলাদা ক্লাস পরিচালনা করেছি। এসএসসিতে ভালো ফলাফলের জন্য শিক্ষকদের নিয়ে নিয়মিত বসা, কীভাবে ভালো করা যায়, ক্লাস মনিটরিংসহ নানা পরিকল্পনা গ্রহণ করি। এসকল বিষয়ে ম্যানেজিং কমিটির সহযোগিতা ও শিক্ষকদের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় আমাদের বিদ্যালয়ের এ সাফল্য। সর্বপরি শিক্ষার্থীদের নিয়মিত ক্লাসে অংশ গ্রহণ এবং সকলের সার্বিক সহযোগিতায় আমরা আমরা আগামী দিনেও সাফল্যের এ ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে চাই।
বিদ্যালয়ের এ সাফল্যে শিক্ষকম-লী, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ ও অভিনন্দন জানান বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আমিনুর রহমান উল্লাস।