সাতক্ষীরা নিউমার্কেট পরিত্যক্ত ঘোষনা : প্রতিবাদে ব্যবসায়ীদের স্মারকলিপি


1649 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা নিউমার্কেট পরিত্যক্ত ঘোষনা : প্রতিবাদে ব্যবসায়ীদের স্মারকলিপি
এপ্রিল ৬, ২০১৭ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

শেখ আরিফুল ইসলাম আশা  ::
সাতক্ষীরা নিউমার্কেট ব্যবসায়ীদের ৩০ দিনের মধ্যে দোকান ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে পৌর কর্তৃপক্ষ। নিউ মার্কেট ভবনটি স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় কর্তৃক  পরিত্যক্ত ঘোষনার বরাত দিয়ে সেখানে নতুন ভবন তৈরির কথা জানিয়েছে পৌরসভা।
এদিকে এ   ঘোষনায় ব্যবসায়ী সমাজের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।  তারা পৌরসভার এই ঘোষনার প্রতিবাদে  আজ বৃহস্পতিবার  বিকালে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন। ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক অরুন কুমার মন্ডল স্মারকলিপি গ্রহন করে বলেন তিনি বিষয়টি জেলা প্রশাসকের নজরে এনে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

নিউমার্কেট বণিক সমিতির সভাপতি বিশ্বনাথ ঘোষ  স্মারক লিপির বরাতে জানান গত ৪ এপ্রিল তাদের কাছে ৩০ দিনের মধ্যে সবগুলি দোকান পৌরকর্তৃপক্ষকে বুঝিয়ে দিয়ে মালামাল সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বলা হয়েছে ভবনটি ঝুঁকিপূর্ন হওয়ায় সেখানে রানা প্লাজার মতো বেদনাদায়ক ঘটনা ঘটতে পারে।  তিনি বলেন নিউ মার্কেট ভবনটির বয়স সর্বোচ্চ ৩৪ বছর। ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষনার অবস্থায় নেই। তাছাড়া পরিত্যক্ত ঘোষনা করতে হলে যে ধরনের প্রকৌশলগত জরিপ দরকার তাও করা হয়নি। এখন পর্যন্ত এতোটুকু পলেস্তারাও  খসে পড়েনি। তারা জানান স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে ভুল তথ্য দিয়ে ভবনটি কনডেমনড ঘোষনা করানো হয়েছে। তিনি আরও বলেন ৩০ দিনের মধ্যে নিউমার্কেটের কোটি কোটি টাকার সম্পদ অপসারন দুরুহ বিষয়। এতো কম সময়ের মধ্যে তা সম্ভব নয় জানিয়ে তিনি আরও বলেন ব্যবসায়ীরা  প্রত্যেকেই ব্যাংকের কাছে ঋণী। ফলে ব্যাংকিং লেনদেন ব্যাহত হওয়ায় তারা দেউলিয়া হয়ে পড়বেন।  এছাড়া বাজারে দোকান সমূহের বাকি রয়েছে এবং দোকান মালিকরাও ঢাকায় বিভিন্ন কোম্পানির কাছে আর্থিকভাবে দেনা রয়েছেন। হঠাৎ এমন একটি ঘোষনা তাদের মাথায় বিনা মেঘে বজ্রপাতের মতোই। দোকান মালিকরা আরও বলেন কতোদিন পর তারা ফের নতুন দোকানে উঠতে পারবেন তার কোনো সময়সীমা দেয়নি পৌরসভা। এমনকি অন্তর্বর্তীকালিন সময়ে ব্যবসার জন্য তাদেরকে অস্থায়ী পুনর্বাসনের ব্যবস্থাও করা হয়নি। ব্যবসায়ীরা বলেন দোকান ছেড়ে দেওয়ার পর তৈরিকৃত নতুন ভবনে তারা দোকান পাবেন কিনা তার কোনো গ্যারান্টিও দেয়নি পৌরসভা। তারা বলেন উন্নয়নের স্বার্থে সাতক্ষীরা নিউ মার্কেট ভেঙ্গে নতুন ভবন করতে চাইলে তাতে বাধা নেই। শুধু মাত্র কিছু বেশি সময় দেওয়া এবং তারা ফের দোকান পাবেন এমন নিশ্চয়তা পেলেই তারা দোকান ঘর ছাড়তে রাজী আছেন। অন্যথায় পৌরকর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্তের বিপক্ষে তারা কর্মসূচি দেবেন। প্রয়োজনে আইনের  আশ্রয় নেবেন।
তবে পৌর কর্তৃপক্ষ বলছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় এটিকে কনডেমনড ঘোষনা করেছে। যারা এখানে ব্যবসায়ী আছেন তারা অগ্রাধিকারভিত্তিতে বিধি অনুযায়ী নতুন দোকান বরাদ্দ পাবেন।