সাতক্ষীরা পল্লী মঙ্গল স্কুলের শিক্ষার্থীরা শুনলো প্রকৃতি ও পুষ্টির গল্প


504 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা পল্লী মঙ্গল স্কুলের শিক্ষার্থীরা শুনলো প্রকৃতি ও পুষ্টির গল্প
অক্টোবর ২৬, ২০১৬ ফটো গ্যালারি শিক্ষা
Print Friendly, PDF & Email

আশরাফুল আলম :
ব্রাহ্মি শাক ব্রেইনের জন্য উপকারী। তেলাকচু ডায়াবেটিসের মহৌষধ আর কচুর পাতা চোখের জন্য ভাল।

এছাড়া রয়েছে অত্যন্ত পুষ্টি সমৃদ্ধ থানকুনি, কলমি, দস্তা কচু, হেলাঞ্চ, সাঞ্চি, বেতশাক, কলার মুচা, ডুমুর, বউটুনি, শাপলা, ঘ্যাটকল, পেপুলসহ নানা প্রজাতির অচাষকৃত শাক লতা-পাতা।

আর এসব শাক লতা-পাতার ওষুধি ও খাদ্যগুণ মুগ্ধ হয়ে শুনছিল শিক্ষার্থীরা।

বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা পল্লীমঙ্গল স্কুল এ্যান্ড কলেজ ক্যাম্পাসে বারসিক ইনস্টিটিউট অব এ্যাপ্লাইড স্ট্যাডিজ আয়োজিত ‘এসো প্রকৃতিকে জানি, পুষ্টির গল্প শুনি’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রকৃতিতে প্রাপ্ত শাক লতা-পাতার পুষ্টিগুণ তুলে ধরে পুষ্টির ফেরিওয়ালা খ্যাত যুব উদ্যোক্তা রুহুল কুদ্দুস ও বাবর আলী।

এ সময় তারা শিক্ষার্থীদের প্রতি বাড়ির আশপাশের পতিত জমিতে কুড়িয়ে পাওয়া শাক সংরক্ষণ ও পুষ্টি নিশ্চিতের আহবান জানান।

এর আগে সাতক্ষীরা পল্লীমঙ্গল স্কুল এ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ রবিউল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।

এসময় আরও বক্তব্য রাখেন, সহকারী প্রধান শিক্ষক শফিকুল ইসলাম, সহকারী শিক্ষক জাহিদ হোসেন, মনোতোষ কুমার দা, জালাল উদ্দিন, অনিমা দাশ, সুজাতা রনী রায়, গবেষণা প্রতিষ্ঠান বারসিকের আঞ্চলিক সমন্বয়কারী শাহীন ইসলাম, শিক্ষা, সংস্কৃতি ও বৈচিত্র্য রক্ষা টিমের আহবায়ক আসাদুল ইসলাম, সদস্য সাইদুর রহমান, সিরাজুল ইসলাম, কাদের সিদ্দিকী প্রমুখ। ##