সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের অফিস ভবন ঝুঁকি পূর্ণ


609 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের অফিস ভবন ঝুঁকি পূর্ণ
সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

আলতাফ হোসেন বাবু :
সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের অফিস ভবন ঝুঁকি পূর্ণ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডে বিভাগ-১ এবং বিভাগ-২ এর কর্মকর্তা- কর্মচারীদের জরা জীর্ন অফিসে প্রতিদিন ঝুঁকির মধ্যে অফিসের সকল কর্মকান্ড সম্পাদন করতে হচ্ছে।

১৯৬৫ সালে তৎকালীন মহাকুমা শাসনামলে সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের কার্যালয় নির্মাণ করা হয়।  ওই বিল্ডিং নির্মাণের পর থেকে আজ পর্যন্ত বিল্ডিং সংস্কারের কোন ছোয়া লাগেনী। পাওবোর্ড’র দ্বিতল বিশিষ্ট  অফিস বিল্ডিংএ  বিভাগ-১ ও বিভাগ-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয়, উপ বিভাগীয় প্রকৌশলীর কার্যালয়, হিসাব শাখা, রাজস্ব শাখা, যোগাযোগ শাখা, ম্যাপসহ সর্বমোট ২৪টি কক্ষ ব্যবহার করা হয়। দীর্ঘ যুগ অতিবাহিত হওয়ার কারণে বিল্ডিং’র প্রত্যেকটি কক্ষের দেওয়াল, প্লীয়ার, মেঝে এবং ছাদে বড় বড় আকারের ফাটল ধরেছে। বিভিন্ন সময় কক্ষের দেওয়াল এবং ছাদ থেকে প্লাস্টার ভঙ্গুর হয়ে খসে খসে পড়ছে। বিল্ডিংর প্লিয়ার ভেঙে ভেঙে অর্ধেকে পরিনত হয়েছে। ছাদের প্লাস্টার ভেঙে পড়ার কারণে, ছাদের রড বেরিয়ে তাতে মরিচা ধরে লোহার রড গুলিও ঝরে ঝরে নিচে পড়ছে। বিল্ডিং এর জল ছাদ নষ্ট হওয়ার কারনে দেওয়াল ও প্লিয়ার ভঙ্গুর হয়ে গেছে। যে কোন মূহুত্তে ওই ভবণ ধ্বসে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা রয়েছে। বুধবার দুপুরে সরেজমিনে যেয়ে দেখা যায়, সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের দ্বিতল বিশিষ্ট ভবণের ২৪টি রুমের বেহালদশা। অধিকাংশ কক্ষের দরজা, জানালা খুলে খুলে পড়ছে। জরাজির্ণ ওই ভবণে শুধু মাত্র নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয় আংশিক সংস্কার করা হলেও, অন্য কোন কক্ষে সংস্কার করা হয়না।

এদিকে পানি উন্নয়ন বোর্ডের আবাসিক ভবণের একই অবস্থা । দীর্ঘদিনের আবাসিক ভবণ সংস্কার কাজ না হওয়ার কারণে এবং বর্ষার মৌসুমে ছাদ থেকে বৃষ্টির পানি চুয়ে চুয়ে পড়ার কারনে ভবণের দেওয়াল এবং ছাদ ভঙ্গুর হয়ে গেছে। আবাসিক ভবনে নিরাপত্তার অভাবে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেশির ভাগ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা, তাদের পরিবার নিয়ে অন্যত্র ভাড়া বাড়িতে বসবাস করেন।

এব্যাপারে পাওবোর্ডের এসও  মোঃ খায়রুল ইসলাম জানান, জরাজির্ণ অফিসের মধ্যে কম্পিউটার, জেলার গুরুত্বপূর্ণ ম্যাপও কাগজপত্র থাকে। বিভিন্ন সময় অফিসের ছাদ থেকে প্লাস্টার খসে খসে মাথার উপরে পড়ে। বর্ষার সময় ছাদের পানি রুমের মধ্যে ঢোকার কারণে কম্পিউটারসহ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র ভিজে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। অতি দ্রুত এই ভবণ পরিত্যাক্ত ঘোষণা করা নাহলে, ভবণ ধ্বসে কর্মকর্তা কর্মচারীদের প্রাণহানী ঘটতে পারে।

সাতক্ষীরা পৌর ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি স্থানীয় সমাজ সেবক শেখ জাহাঙ্গীর হোসেন কালু জানান, সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের অফিস বিল্ডিংএর বয়স দীর্ঘ ৫০ বছরেরও বেশী। বিভিন্ন সময়ে প্রাকৃতিক দূর্যোগের কারণে এবং সাতক্ষীরা লবাক্ত এলাকা হওয়ায় পুরাতন বিল্ডিং ভঙ্গুর হয়ে পড়েছে। যে কোন সময় ওই ভবণ ধ্বসে রানা প্লাজার মতো ভয়াবহ অবস্থা সৃষ্টি হতে পারে। এব্যাপারে অতিদ্রুত বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উর্দ্ধতন কর্র্তৃপক্ষকে ওই ভবণ পরিত্যাক্ত ঘোষণা করা এবং যথাযত পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত।