সাতক্ষীরা পৌরসভার অর্ধেক মানুষ পানিবন্দি, মেয়র অসহায় !


587 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা পৌরসভার অর্ধেক মানুষ পানিবন্দি, মেয়র অসহায় !
আগস্ট ১৭, ২০১৯ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

॥ এম কামরুজ্জামান ॥

————————————-
শনিবার ভোররাতে কয়েক ঘন্টার ভারী বৃষ্টিতে সাতক্ষীরা পৌরসভার প্রায় অর্ধেক এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এসব এলাকার কয়েক হাজার বশত বাড়িতে পানি উঠেছে। পর্যাপ্ত ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায়, অপরিকল্পিত মাছ চাষ ও পয়ঃনিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় সর্বপরি পৌরসভার মাষ্টারপ্লানের অভাবে একটু ভারী বৃষ্টি হলেই অধিকাংশ এলাকায় হাঁটু পানি জমে। শনিবার শেষ রাতের ভারী বর্ষনে সাতক্ষীরা পৌরসভার ৬ ,৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ড এলাকা বসবাসের অনুপযোগি হয়ে পড়েছে।
এ ব্যাপারে সাতক্ষীরা পৌর সভার মেয়র তাসকীন আহমেদ চিশতি ভয়েস অব সাতক্ষীরাকে বলেন, পৌরসভার চারিপাশে অসংখ্য মাছের ঘের রয়েছে। ঘের মালিকদের বার বার নোটিশ করার পরেও তারা পৌর কর্তৃপক্ষের আদেশ মানেন না। প্রভাব খাটায়।


খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, সাতক্ষীরা পৌরসভার পলাশপোল, কামাননগর, কাটিয়া, লস্করপাড়া, সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ রোড, পুরাতন সাতক্ষীরা, মধুমল্লার ডাঙ্গি, মুনজিতপুর, ঘুটিরডাঙ্গি,সিটি কলেজ মোড়, সার্কিট হাউজ মোড়সহ বিভিন্ন এলাকায় বশত বাড়ির ভিতর পানি জমেছে। বৃষ্টির পানির কারনে শত শত মানুষের রান্না খাওয়া বন্ধ হয়ে গেছে। তাদেও রান্নার জায়গা নেই। থাকার জায়গাও একই অবস্থা ।
সাতক্ষীরা শহরের কামালনগর, ইটাগাছা এলাকার মানুষ অভিযোগ করে জানান, কামালনগর ও ইটাগাছা বিলে সামছুর মাষ্টার, রজব আলী, মুনসুর হোটেল ,সিরাজুল ইসলাম, আফছার আলী, আব্দুল জলিল, জমিদার রফুসহ কয়েকজন প্রভাবশারী ব্যক্তি সেন্ডিকেট করে অবৈধভাবে মৎস্য চাষ করায় পানি নিস্কাসনে বাধাগ্রস্থ হচ্ছে। ফলে একটু ভারী বৃষ্টি হলেই এসব এলাকায় হাঁটু পানি জমছে। এলাকার বাড়িঘরে ভিতর পানি জমে যাচ্ছে।


সাতক্ষীরা জেলা নাগরিক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক আনিসুর রহিম জানান, সাতক্ষীরা পৌরসভায় পানি নিস্কাশন সমস্যা দীর্ঘদিনের। পৌর কর্তপক্ষ এ ব্যাপারে দৃশ্যমান কোন ব্যবস্থা গ্রহন করছে না। সাতক্ষীরা শহরের পশ্চিম ও পূর্ব পাশে অসংখ্য মাছের ঘের রয়েছে। এসব ঘেরের ভেঁড়ি বাঁধের কারনে পানি নিস্কাশন বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে। ভেড়িবাঁধ গুলো এই মুহুত্বে কেটে দেওয়া দরকার। তা না হলে দীর্ঘমেয়াদি জলবদ্ধতার শিকার হবে সাতক্ষীরা শহরের হাজার হাজার মানুষ।


এ ব্যাপারে সাতক্ষীরা পৌর মেয়র তাসকীন আহমেদ চিশতি ভয়েস অব সাতক্ষীরাকে বলেন, ভারী বৃষ্টিপাতের কারনে এই মুহুত্বে সাতক্ষীরা পৌরসভার ৯টি এলাকায় পানি জমে আছে। শত শত বাড়িঘরে পানি উঠেছে। পৌরসভার চারিপাশে বিশেষ করে গদাই বিল ও বদ্দিপুর কলনীর পাশ্ববর্তী বিলে অপরিকল্পিত চিংড়ি ঘেরের কারনে পানি নিস্কাশন হচ্ছে না। আমরা বার বার এসব ঘের মালিকদের নোটি করেছি ভেড়িবাঁধ সরিয়ে নেওয়ার জন্য। কিন্তু তারা কোন কথাই শুনতে চায়না। তারা এতাটাই প্রভাবশালী যে, পৌরসভার আদেশ তারা মানে না। বরং প্রভাব খাটিয়ে তারা বহাল তবিয়তে মাছের ঘের করছে। এ ব্যাপারে তিনি পৌরসভার সচেতন নাগরিকদের সহযোগিতা চাইলেন।