সাতক্ষীরা প্রবীণ আবাসন কেন্দ্রে আশ্রয় নেওয়া বৃদ্ধ জামাত আলী : এখনতো আর চিন্তা নেই


515 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা প্রবীণ আবাসন কেন্দ্রে আশ্রয় নেওয়া বৃদ্ধ জামাত আলী : এখনতো আর চিন্তা নেই
জুলাই ২৫, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

আলতাফ হোসেন বাবু : বাড়িতে থাকার চিন্তা, খাওয়ার চিন্তা, পরার চিন্তা। এখনতো আর চিন্তা নেই। ছেলে-মেয়ে থাকতেও দুনিয়ায়, আমার দেখার কেউ নেই। বাড়ির চেয়ে এখানে ভালো আছি বাবা! প্রবীণ আবাশন কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়ে থাকা সম্বলহীন অসহায় বৃদ্ধ জামাত আলী মোল্যা(৭২) গভীর আক্ষেপের সাথে এমন কথা গুলি বলেন। সাতক্ষীরা কলারোয়া উপজেলার রামকৃষ্টপুর গ্রামের মৃত হোসেন আলী মোল্যার ছেলে জামাত আলী মোল্যা জীবনের শেষ প্রান্তে এসে বড় অসহায় হয়ে পড়েছেন তিনি। জামাত আলীর ৩ছেলে আর ১মেয়ে। কিন্তু ছেলে-মেয়ে থাকতেও বৃদ্ধ বয়সে আজ তার পাশে কেউ নেই। বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশনের আর্থিক সহয়াতায় এবং বেসরকারি সংস্থা আরা সংস্থার পরিচালনায় সাতক্ষীরা শহরের রসুলপুর মেহেদী বাগে(সিটি কলেজের পশ্চিম পাশে) অবস্থিত প্রবীণ আবাসন কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছেন বৃদ্ধ জামাত আলী মোল্যা। বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশনের আর্থিক সহয়াতায় এবং আরা সংস্থার পরিচলনায় প্রবীণ আবাসন কেন্দ্রে বৃদ্ধ জামাত আলীসহ আশ্রয় নিয়েছেন কলারোয়া উপজেলার পিছলা পোল গ্রামের মৃত আলীমুদ্দীনের ছেলে আব্দুল গণি(৮৩), স্ত্রী মনোয়ারা বেগম(৬৭)।  আব্দুল গণি ও মনোয়ারা বেগম নিঃসন্তান হওয়ায়, এলাকার এক দরিদ্র পরিবারের মেয়েকে লালন পালন করেছেন তারা।আব্দুল গণি ও মনোয়ারা বেগমের ভিটাবাড়ি পালিত মেয়ে, নিজের নামে লিখে নেওয়ার পর থেকে বৃদ্ধ বয়সে তাদের দেখভাল করা ছেড়েদেয় ওই মেয়ে। স্ত্রী মনোয়ারা বেগম প্যারালাইস্ট হলে, আব্দুল গণি স্ত্রীকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে, সন্ধান মেলে সাতক্ষীরা রসুলপুরস্থ মেহেদীবাগে প্রবীণ আবাসন কেন্দ্র। তাই স্ত্রীকে নিয়ে তারা দুজনই আশ্রয় নিয়েছেন প্রবীণ আশ্রয় কেন্দ্রে। আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়েছেন সদর উপজেলার লাবসা ইউনিয়নের দেবনগর গ্রামের মৃত মফেজ উদ্দীনের সরদারের ছেলে সাকাউদ্দীন সরদার (৯০)। সাকাউদ্দীন সরদার ৪ছেলে এবং ৪মেয়ের জনক। কিন্তু ছেলে মেয়েরা থাকতেও বৃদ্ধ বয়সে আজ সাকাউদ্দীনের ভরণপোষণ করার কেউ নেই তার পাশে। তাই গত একমাস যাবত আশ্রয় নিয়েছেন প্রবীণ আবাসন কেন্দ্রে।
বেসরকারি সংস্থা আরা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক আবুল কালাম আজাদ বলেন, বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশনের আর্থিক সহযোগিতায় সাতক্ষীরায় দীর্ঘ মেয়াদী প্রবীণ আবাসন কেন্দ্র চালু করা হয়েছে। আমাদের সমাজে অনেক পরিবারে বৃদ্ধ মানুষ রয়েছেন অবহেলিত। অনেকে প্রবীণ মানুষদের, পরিবারের বোঝা মনে করে তাদেরকে অবহেলা করেন। তাই প্রবীণদের সেবা দিতে সাতক্ষীরায় প্রবীণ আবাসন কেন্দ্র চালু করা হয়েছে। এখানে বর্তমানে ৩জন বৃদ্ধ এবং ১জন বৃদ্ধা আশ্রয় নিয়েছেন। তাদের খাওয়া দাওয়া, চিকিৎসাসহ সকল খরচ বহণ করছে আরা সংস্থা। এখানে আপাতত ২০জন প্রবীণ মানুষের আশ্রয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। নারী এবং পুরুষদের আলাদা আলাদা থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। সমাজে অবহেলিত প্রবীণদের খোজ পেলে আমারা, এই আবাসন কেন্দ্রে আশ্রয়ের ব্যবস্থা করবো। প্রবীণ আবাসন কেন্দ্রের সার্বিক তত্বাবধানের দায়িত্বে রয়েছেন নজরুল ইসলাম। প্রবীণ আবাসন কেন্দ্রে দিতে সার্বিক তত্বাবোধায়ক নজরুল ইসলামের মুঠোফোনে(০১৭১৪-৭৪০৩৭২) যোগাযোগ করার আহবান জানান আরা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক।