সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে শিশুদের তুলির আচঁড়ে ফুটে উঠলো মুক্তিযুদ্ধ, গণহত্যা, স্বাধীনতা আর বাংলাদেশের পতাকা


738 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে শিশুদের তুলির আচঁড়ে  ফুটে উঠলো মুক্তিযুদ্ধ, গণহত্যা, স্বাধীনতা আর বাংলাদেশের পতাকা
মার্চ ২৪, ২০১৭ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার ::

কোমলমতি শিশুদের হাতের পরশে যেনো উঠে এলো নতুন এক বাংলাদেশ। ছবিতে মাথা উঁচিয়ে রইলো জাতীয় স্মৃতি সৌধ। মুক্তিকামী বাঙ্গালির মুক্তিযুদ্ধের যেনো এক একটি রণক্ষেত্র রক্তিম হয়ে উঠলো তাদের তুলির আঁচড়ে। আর নিজ হাতে লিখে তারা প্রকাশ করলো বাংলাদেশের প্রতি অকৃত্রিম ভালবাসা, মাতৃভাষার প্রতি দরদ আর দেশপ্রেম।

শুক্রবার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব মিলনায়তন এমন সব শিশুর কলকাকলিতে মুখর হয়ে উঠেছিল। তারা রং তুলির আঁচড়ে স্বাধীনতার লাল সূর্য আর বীর শহীদদের তুলে ধরে গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করলো। দীর্ঘ রচনা লিখে তারা স্বাধীনতার ইতিহাস তুলে ধরলো।

বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়ে সাত কোটি বাঙ্গালি কিভাবে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল তারও এক বিবরন দিল তারা।  মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব আয়োজন করেছিল সুন্দর হাতের লেখা, রচনা ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা’র।

আর এতেই অংশ নিতে শামিল হয়েছিল সাতক্ষীরার শিশুরা। ক্যানভাসে তারা এঁকে দেখালো জাতীয় স্মৃতি সৌধ, রণাঙ্গণে মুক্তিযুদ্ধ ও গনহত্যার চিত্র। রং আর তুলিতে তারা ফুটিয়ে তুললো স্বাধীন বাংলাদেশের অবয়ব।

প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণিকে ক এবং তৃতীয় থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত খ গ্রুপে ভাগ হওয়া শিশুরা এসব প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিল। বাংলা প্রকৃতি, ঘাস ফুল ফল পাখি, বাংলার জল বাংলার আকাশ এঁকে তারা শ্যামল বাংলার গ্রাম চিত্র তুলে সেখানে মুক্তিযুদ্ধ এঁকে দেয়। বাংলাদেশের লাল সবুজ পতাকা এঁকে তারা সালাম জানায়।

তমাল তরুর সবুজ বাংলাকে তারা হৃদয় দিয়ে অনুভবে এনে তুলে ধরেছিলো বর্ণমালা আর ক্যানভাসে। প্রতিযোগতা শেষে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন প্রধান অতিথি সাতক্ষীরা জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার মোশাররফ হোসেন মশু।

সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব সভাপতি ্ এড. আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পুরস্কার বিতরনীতে আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক সভাপতি সুভাষ চৌধুরী , সাবেক সভাপতি অধ্যাপক আনিসুর রহিম, সাবেক সহ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল

ওয়াজেদ কচি, সাধারন সম্পাদক আবদুল বারী, সাবেক সাধারন সম্পাদক এম কামরুজ্জামান, উদযাপন কমিটির আহবায়ক আবুল কাসেম, বিশিষ্ট চিত্র শিল্পী ঈষিকা আর্টের আবদুল জলিল এবং মো. রবিউল ইসলাম, সৈয়দ রফিকুল ইসলাম শাওন, শেখ তানজির আহমেদ প্রমুখ সাংবাদিক ।

চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় ক গ্রুপের প্রথম পুরস্কার লাভ করে সাতক্ষীরা কিন্ডার গার্টেনের জারিন তাসনিম খান, দ্বিতীয় একই বিদ্যালয়ের জেড আই তাহিয়াত এবং তৃতীয় পুরস্কারও লাভ করে একই প্রতিষ্ঠানের অহনা আইচ।

খ গ্রুপের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় প্রথম পুরস্কার লাভ করেছে সাতক্ষীরা সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের অহিন অর্ণব বাছাড়, দ্বিতীয় পুরস্কার একই বিদ্যালয়ের রাজকুমার মজুমদার ও তৃতীয় পুরস্কার পেয়েছে সিলভার জুবিলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাজী জহিরা ইফরীত।

সুন্দর হাতের লেখা প্রতিযোগিতায় প্রথম হয়েছে সিলভার জুবিলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তানিশা তাসনিম, দ্বিতীয পুলিশ লাইন্স স্কুলের সাদ ইবনে আখতার ও তৃতীয় পুরস্কার পেয়েছে মর্ণিং সান প্রিক্যাডেটের নিসর্গ কুন্ডু। খ গ্রুপের রচনা প্রতিযোগিতায়

প্রথম স্থান পেয়েছে সাতক্ষীরা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ফাহমিদা রহমান, দ্বিতীয় হয়েছে সাতক্ষীরা সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের তৌফিক ইসলাম ও তৃতীয় সিলভার জুবিলীর কাজী জহিরা ইফরীত ।
##