সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সাবেক সেনা সদস্যের সংবাদ সম্মেলন


378 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সাবেক সেনা সদস্যের সংবাদ সম্মেলন
অক্টোবর ২১, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সাতক্ষীরায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষ সরকার বিরোধী সহিংসতায় অংশগ্রহণকারি এলাকার চিহিৃত জামায়াত-শিবিরের সহযোগি শেখ মিজানুর রহমান গংরা এক অবসর প্রাপ্ত সেনা সদস্য ও তার পরিবারের সদস্যদেরকে নানা ভাবে হয়রানি ও নির্যাতন চালিয়ে আসছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন সদর উপজেলার কাশেপুর গ্রামের মৃত মীর রেজওয়ান আলীর ছেলে অবসর প্রাপ্ত সেনা সদস্য মীর ওসমান আলী।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মীর ওসমান আলী বলেন, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে  এলাকার শেখ আবুল হোসেনের ছেলে শেখ মিজানুর রহমান ও হাফিজুল ইসলাম, তার ছেলে শুভ, মীর শামসুদ্দিনের ছেলে মীর সোহরাব আলী ও সাহবুদ্দিন, মীর সোহরাব আলীর ছেলে মীর জাহাঙ্গির আলম ও তার ভাই শাহাদত আলী (সবুজ), মীর বদিউজ্জামান ও তার ছেলে মীর মনিরুজ্জামান এর সাথে দীর্ঘদিন ধরে তাদের বিরোধ চলে আসছিল।

এঘটনায় দেওয়ানী আদালতে ৩টি মামলাও রয়েছে। উল্লেখিতরা ২০১৩ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারী মাওঃ সাইদীর ফাঁসির রায় হওয়ার পর বিকালে শহরের সার্কিট হাউস মোড়ে সংগঠিত সহিংসতায় সরাসরি অংশ গ্রহণ করে।

তারা জামায়াতের সংগঠন পরিচালানার জন্য প্রতিমাসে ২০ হাজর টাকা চাাঁদা প্রদান করে। কিন্তু আমরা আওয়ামী পরিবারের লোক হওয়ায়  এবং পৈত্রিক সম্পত্তি ও বৈধ কাগজপত্র থাকায় জামায়াত-শিবিরের সহযোগি শেখ মিজানুর রহমান গংরা ওই সম্পত্তি দখলে নিতে ব্যার্থ হয়ে তার ও পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করার চেষ্টা করতে থাকে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, স্বাধীনতা বিরোধী চক্রটি তাদের দমন করতে না পেরে স্থানীয় কুচক্রীমহলের সহযোগিতায় উল্টো তাদেরকে জামায়াত-শিবিরের সাথে সম্পৃক্ততা রয়েছে মর্মে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেছে।

ইতিমধ্যে  তার সাংবাদিকদের মিথ্যে তথ্য দিয়ে ও ভূল বুঝিয়ে গত ২০ ও ২১ অক্টোবর স্থানীয় দু’টি কাগজে তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যে সংবাদ প্রকাশ করিয়েছে।
উক্ত সংবাদে প্রকাশিত বিষয়টি সম্পূর্ন মিথ্যে ও ভিত্তিহীন।  তিনি  আরো বলেন, মীর সাহবুদ্দিনের ছেলে শাহাদত হোসেন সবুজ সেনা বাহিনীতে চাকুরি করে। ছুটিতে বাড়িতে এসে সে তার ও পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন ভাবে হুমকি ধামকি প্রদান করে থাকে। থানা পুলিশের মাধ্যমে তাদের মিথ্যে মামলায় গ্রেফতারের ভয় দেখায় সে।
তার কিশোর ছেলে মীর আলিমুজ্জামান বাবু’র নামেও মিথ্যে মামলা দিয়ে তার ভবিষ্যৎ নষ্ট করার হুমকি দিচ্ছে তারা। ফলে তিনি পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বর্তমানে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। তিনি ষড়যন্ত্রকারিদের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।