সাতক্ষীরা শহরের সুলতানপুরে বিধবার জমি দখলের চেষ্টা । বাড়ি ভাংচুর


609 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরা শহরের সুলতানপুরে বিধবার জমি দখলের চেষ্টা । বাড়ি ভাংচুর
সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সাতক্ষীরা শহরের সুলতানপুর এলাকায় এক বিধবার জমি দখলের অপচেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে রাতের আধারে ওই বিধবার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে স্থানীয় এক প্রভাবশালী। এঘটনায় বিধবা নাজিরা বেগম বাদি হয়ে ওই ওই এলাকার জিয়াউল হকের নামে সাতক্ষীরা আদালতে মামলা দায়ের করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার ভোরে।

মামলার বিবরণে জানাযায়, নাজিরা বেগমের স্বামী অহিদ মোড়ল সাতক্ষীরা মৎস্য অফিসের কর্মরত ছিলেন। এর সুবাধে তিনি সুলতানপুর এলাকার জনাব আলীর বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। কিন্তু তার স্বামী ২০০৮ সালে দূবৃর্ত্ত কর্তৃক নিহত হন। এরপর থেকে তিনি তার ২ কন্যা সস্তান কে নিয়ে অতিকষ্টে জীবন যাপন করতে থাকেন।

নাজিরা বেগম জানান, তার স্বামী অহিদ মোড়লের ওই বাড়ির মালিক জনাব  আলীর সাথে সু-সম্পর্ক ছিলো। একারণে জনাব আলী ওই জমির মধ্যে ৫ শতক জমি তার স্বামীর নামে দানপত্র করে দেন। তারপর থেকে ২ কন্যা সন্তান কে নাজিরা বেগম সেখানে খেয়ে না খেয়ে অতিকষ্টে ২০ বছর ধরে জীবন যাপন করছে। গত ৩ মাসে আগে জমির মালিক ১০ শতক জমির মধ্যে ৫ জমি সুলতানপুর এলাকার সিরাজুল হকের ছেলে জিয়াউল হক এর কাছে বিক্রয় করেন। কিন্তু তিনি ৫ শতক জমি দখল না নিয়ে পুরো জমি দখল নেয়ার জন্য পায়তারা চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে নাজিরা বেগম ও তার ২ কন্যাকে বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করছে।

শনিবার ভোররাতে জিয়াউল হক তার লোকজন নিয়ে নাজির বেগমের বাড়িতে আকস্মিক হামলা চালায়। এসময় তার বাড়ির সামনের প্রাচীর ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়। হামলার সময় নাজিরা বেগমের চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসলে জিয়াউল হক তার লোকজন নিয়ে কেটে পড়েন।

এদিকে জিয়াউল হকের নামে নাজিরা বেগম বাদি থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এঘটনায় অসহায় বিধবা নাজিরা বেগম পুলিশ প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।