সাবেক ফিফা রেফারী তৈয়ব হাসান বাবুর আলোচিত জার্সি বিক্রির ৫ লাখ ৫৫ হাজার টাকা হস্তান্তর


317 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাবেক ফিফা রেফারী তৈয়ব হাসান বাবুর আলোচিত জার্সি বিক্রির ৫ লাখ ৫৫ হাজার টাকা হস্তান্তর
এপ্রিল ১২, ২০২১ খেলা ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

তৈয়ব হাসান বাবু : প্রতিষ্ঠানভিত্তিক এই টাকা ব্যয় করা হবে। যেহেতু আমি ক্রীড়াঙ্গনের মানুষ সেহেতু সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থাকে একটি অংশ, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ও সাতক্ষীরা জেলা ফুটবল ফেডারেশনকে একটি অংশ, সাতক্ষীরা জেলা রেফারী এ্যাসোসিয়েশনকে একটি অংশ দেয়া হবে। করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত আমার নিকট প্রতিবেশি ও নিকট আত্মীয়স্বজনরা এই টাকার হকদার। তাদের মাঝেও একটি অংশ ব্যয় করা হবে।

বিশেষ প্রতিনিধি :
সাতক্ষীরার কৃতি সন্তান, সাবেক ফিফা রেফারী তৈয়ব হাসান বাবুর আলোচিত সেই জার্সি বিক্রির ৫ লাখ ৫৫ হাজার টাকা অবশেষে হস্তান্তর হয়েছে।

সোমবার (১২ এপ্রিল) সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা বদরুল ইসলাম খান ও সাবেক ফিফা রেফারী তৈয়ব হাসান বাবুর হাতে জার্সি বিক্রির টাকা তুলে দেন নিলামে জার্সি ক্রেতা সাতক্ষীরা চেম্বার অব সমার্সের সভাপতি নাসিম ফারুক খান মিঠু।

সাবেক ফিফা রেফারী তৈয়ব হাসান বাবু জানান, গতবছর মে মাসে জার্সিটি নিলামে বিক্রি হয়। আজ (১২ এপ্রিল) সোমবার দুপুরে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদকের মধ্যস্ততায় জার্সি বিক্রির ৫ লাখ ৫৫ হাজার টাকা পেয়েছি। কাদের কল্যানে এই অর্থ ব্যয় করবেন, এমন প্রশ্নের উত্তরে সাবেক ফিফা রেফারী তৈয়ব হাসান বাবু বলেন, প্রতিষ্ঠানভিত্তিক এই টাকা ব্যয় করা হবে। যেহেতু আমি ক্রীড়াঙ্গনের মানুষ সেহেতু সাতক্ষীরা জেলা ক্রীড়া সংস্থাকে একটি অংশ, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন এবং সাতক্ষীরা জেলা ফুটবল ফেডারেশনকে একটি অংশ, সাতক্ষীরা জেলা রেফারী এ্যাসোসিয়েশনকে একটি অংশ দেয়া হবে। এসব প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারাই সিদ্ধান্ত নেবে কাদেরকে এই সহায়তা দেয়া হবে। তিনি বলেন, করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত আমার নিকট প্রতিবেশি ও নিকট আত্মীয়স্বজনরা এই টাকার হকদার। তাদের মাঝেও একটি অংশ ব্যয় করা হবে।

সাবেক ফিফা রেফারী তৈয়ব হাসান বাবু ২০১৩ সালে সাফ ফুটবল ফাইনাল ম্যাচ পরিচালনা করেন এই জার্সি পরে। গতবছর এপ্রিল মাসে করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তার জন্য সাতক্ষীরার কৃতি সন্তান তৈয়ব হাসান বাবু আলোচিত ওই জার্সিটি নিলামে বিক্রির সিদ্ধান্ত নেন। সে সময় বিভিন্ন গনমাধ্যম ও সামাকিজ যোগাযোগ মাধ্যমে সংবাদটি ভাইরাল হয়।

আলোচিত এই জার্সি নিলামে বিক্রির ঘোষণা দেয়ার পর বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সাতক্ষীরা চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি নাসিম ফারুক খান মিঠু ৫ লাখ ৫৫ হাজার টাকা দর তোলেন। তিনি সর্বোচ্চ দরদাতা হওয়ায় জার্সিটি সে সময় নাসিম ফারুক খান মিঠুকেই দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

জার্সি ক্রেতা নাসিম ফারুক খান মিঠু বলেন, জার্সি ক্রয় আমার কাছে মূখ্য বিষয় নয়। মানুষের কল্যানে এই অর্থ ব্যয় করা হবে এটাই আমার সার্থকতা। জার্সি বিক্রির সমুদয় টাকা করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্তদের কল্যাণে ব্যয় করা হবে এই প্রত্যাশা আমার।

#