সাভারে সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে সাতক্ষীরায় মানববন্ধন


464 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাভারে সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে সাতক্ষীরায় মানববন্ধন
জানুয়ারি ২২, ২০১৭ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

আশরাফুল আলম ও শেখ মাহাবুবুর রহমান ::
বাংলাদেশ প্রতিদিনের সাভার প্রতিনিধি নাজমুল হুদার নিঃশর্ত মুক্তি এবং তার বিরুদ্ধে নির্যাতনমূলক মামলার দায়ে আশুলিয়া থানার ওসি মহাসিনুল কাদির, ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল আজিম, সহ-কারী পুলিশ সুপার নাজমুল হাসান সহ তিন পুলিশ কর্মকর্তাকে অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবিতে সাতক্ষীরায় বিক্ষোভ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

রবিবার সকাল ১১ টায় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সামনে সাতক্ষীরার সাংবাদিক সমাজের ব্যানারে এ কর্মসূচী পালিত হয়।

এনটিভি ও দৈনিক যুগান্তরের জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক সুভাষ চৌধুরীর সভাপতিত্বে বত্তব্য দেন সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও চ্যানেল আই এবং দৈনিক পত্রদূত এর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক এ্যাড: আবুল কালাম আজাদ, দৈনিক কালের চিত্রের সম্পাদক অধ্যাপক আবু আহমেদ,দৈনিক দক্ষিনের মশালের সম্পাদক আশেক-ই-ইলাহি, দৈনিক সমকাল ও এটিএন বাংলার সাংবাদিক এম কামরুজ্জামান, সময় টেলিভিশনের মমতাজ আহমেদ বাপী, আমাদের সময় ও মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের মুস্তাফিজুর রহমান উজ্জল, দেশ টিভির শরিফুল্লা কায়সার সুমন, চ্যানেল টোয়েন্টিফোর এর সাতক্ষীরা প্রতিনিধি মনিরুল ইসলাম মনি, গনফোরামের সাতক্ষীরা জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক ভূমিহীন নেতা আলিনুর খান বাবুল
প্রমূখ।

ঘন্টা ব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচী থেকে সাংবাদিক নাজমুল হুদার নিঃশর্ত মুক্তি, তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারা বাতিল, নিহত সাংবাদিক দম্পত্তি সাগর-রুনির বিচার, সাত নদী সম্পাদক হাবিবুর রহমান,সাতক্ষীরার কর্মরত সাংবাদিক অসীম বরণ চক্রবর্তী ও মনিরুল ইসলাম মনি’র বিরুদ্ধে সাবেক স্বাস্থ্য মন্ত্রী আ.ফ.ম রুহুল হক এমপির ভাই তরিকুল ইসলাম কর্তৃক মহাম্মদপুর থানায় দায়েরকৃত হয়রানিমূলক তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারার মামলা প্রত্যাহার সহসারা দেশে সাংবাদিকদের ওপর হয়রানি ও নির্যাতনের প্রতিবাদ জানানো হয়।

একই সাথে সাভারের আশুলিয়ায় কয়েকটি গার্মেন্টসের শ্রমিক আসন্তোষ এবং নিরাপত্তা দেওয়ার নামে কারখানা মালিকদের নিকট থেকে আশুলিয়া থানার ওসি মহাসিনুল কাদিরসহ কিছু অসাধু পুলিশ কর্মকর্তার ঘুষ গ্রহনের খবর বাংলাদেশ প্রতিদিনে প্রকাশ করায় সাংবাদিক নাজমুল হুদাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে জেল হাযতে প্রেরন করার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান সাংবাদিক নেতারা।

মানববন্ধন চলাকলে বক্তরা আরও বলেন, সাভারের আশুলিয়ায় গত বছর ডিসেম্বর মাসে আশুলিয়ায় কয়েকটি গার্মেন্টসের শ্রমিকরা ১৫ হাজার টাকা নুন্নতম মূজরীর দাবিতে আন্দোলন করলে পুলিশ নির্বিচারে তাদের উপর হামলা চালায় ও লাঠি চার্জ, রাবার বুলেট ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে। এ খবর প্রত্রিকায় সাংবাদিক নাজমূল হাসান প্রকাশ করলে পুলিশ তেলে-বেগুনে জ্বলে উঠে। পরবর্তীতে কারখানায় নিরাপত্তা দেওয়ার নামে কারখানা মালিকদের নিকট থেকে কিছু অসাধূ পুলিশ কর্মকর্তাদের ঘুষ গ্রহনের বক্তব্য ভিডিও চিত্র ক্যামেরায় ধারন করলে আশুলিয়া থানার ওসি মহাসিনুল কাদির বিষয়টি জানতে পেরে তার ওপর চড়াও হয়। এর এক পর্যায়ে ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল আজিম, সহ-কারী পুলিশ সুপার নাজমুল হাসান সাংবাদিক নাজমূল হুদাকে ডেকে সংবাদ প্রকাশ না করার জন্য শাষান এবং হাত-পা ভেঙ্গে দেওয়ার হুমকি-ধামকি দেন। তাতে নাজমূল পিছ পা ন হয়ে বাংলাদেশ প্রতিদিনে সংবাদ প্রকাশ করলে ২৩ ডিসেম্বর প্রেস ব্রিফিং এর কথা বলে ওসি মহাসিনুল কাদির সাংবাদিক নাজমুলকে বাইপাইল এলাকায় ডেকে এনে ডিবি পুলিশের দুই সদস্যকে দিয়ে আশুলিয়া থানায় তুলে এনে তার উপর ব্যাপক নির্যাতন চালান ও বেতের লাঠি দিয়ে মারপিট করেন। পরবর্তীতে ৫৭ ধারা সহ প্যাট চুরির মামলা দিয়ে জেল হাজতে প্রেরন করেন। মানববন্ধন কর্মসূচীতে বক্তরা বলেন পুলিশের এ ধরনের আচারন রাষ্ট্রের পরিপন্থি যা কখনো মেনে নেওয়া যায়না। আমরা অবিলম্বে আশুলিয়া থানার ওসি মহাসিনুল কাদির, ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল আজিম, সহ-কারী পুলিশ সুপার নাজমুল হাসান সহ ওই তিন পুলিশ কর্মকর্তার অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি। #