সিঙ্গাপুরে ফিরে গেলেন ড. বিজন কুমার শীল


146 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সিঙ্গাপুরে ফিরে গেলেন ড. বিজন কুমার শীল
সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

করোনাভাইরাস শনাক্তে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের র‌্যাপিড টেস্টিং কিট উদ্ভাবক দলের প্রধান অণুজীব বিজ্ঞানী ড. বিজন কুমার শীল সিঙ্গাপুরে ফিরে গেছেন।

রোববার সকাল সাড়ে ৭টায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে তিনি ঢাকা ত্যাগ করেন।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রেস উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম প্রধান মিন্টু জানান, বিজন কুমার শীল সিঙ্গাপুরের নাগরিকত্ব নেওয়ায় বাংলাদেশে কাজ করার জন্য এখন তার ওয়ার্ক পারমিট প্রয়োজন হয়। গত জুলাইয়ে তার পারমিটের মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। পরে মেয়াদ বৃদ্ধির আবেদন করা হলেও তাতে প্রক্রিয়াগত জটিলতা দেখা দেয়।

তিনি বলেন, ভিসা জটিলতার কারণে তাকে সিঙ্গাপুরে ফিরে যেতে হয়েছে। তবে শিগগিরই তিনি আবার বাংলাদেশে ফিরে আসবেন বলে যাওয়ার আগে আশা প্রকাশ করেছেন।

ড. বিজন কুমার শীলের জন্ম নাটোরের বনপাড়ায়। তার স্ত্রী ও দুই সন্তান সিঙ্গাপুরে থাকেন। ২০০২ সালে সিঙ্গাপুরের সিভিল সার্ভিসে যোগ দেওয়ার সময় সেখানকার নিয়ম অনুযায়ী বাংলাদেশের নাগরিকত্ব ছেড়ে সিঙ্গাপুরের নাগরিকত্ব নিয়েছিলেন তিনি।

২০০৩ সালে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় সার্স ভাইরাস প্রতিরোধের গবেষণায় সিঙ্গাপুর সরকারের একজন বিজ্ঞানী হিসেবে ভূমিকা রেখেছিলেন ড. বিজন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাস সঙ্কটের শুরুর দিকে যখন কিট সঙ্কট প্রকট হয়ে দেখা দিয়েছিল, তখন দেশীয় প্রতিষ্ঠান গণস্বাস্থ্য ফার্মাসিউটিক্যালসের পক্ষে কোভিড-১৯ রোগ শনাক্তে র‌্যাপিড কিট (জিআর কোভিড-১৯ ডট ব্লট কিট) উদ্ভাবনের খবর দেন তিনি। কিন্তু ‘মানোত্তীর্ণ’ হয়নি বলে সেই কিটের অনুমোদন দেয়নি ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর।